Breaking News
Home / আইন আদালত / নড়াইলের চাঞ্চল্যকর প্রবাসী হত্যা মামলার আসামী পিবিআই পুলিশের হাতে গ্রেফতার!!

নড়াইলের চাঞ্চল্যকর প্রবাসী হত্যা মামলার আসামী পিবিআই পুলিশের হাতে গ্রেফতার!!

উজ্জ্বল রায় নড়াইল জেলা প্রতিনিধি■ বুধবার(৬,নভেম্বর) ২৭৪: \ নড়াইলের চাঞ্চল্যকর প্রবাসী আমিরুল ইসলাম টনিক হত্যা মামলার আসামী মনিরুল ইসলাম মাঈনুল মোল্যাকে দিবাগত রাতে গ্রেফতার করেছেন যশোর পিবিআই। হত্যাকান্ডে টনিকের চাচাতো ভাইসহ পাঁচজন জড়িত বলে জানা গেছে। আমাদেও উজ্জ্বল রায় নড়াইল জেলা প্রতিনিধি জানান, গত ১৮ অক্টোবর পিবিআই এর হাতে আটক সজিব খান, পুলিশ ও আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তি মূলক জবানবন্দি ও তার সাথে জড়িত সংগীয়দের নাম প্রকাশ করেন। তার আলোকে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা যশোর পিবিআই এর এসআই শরীফুল ইসলামের নেতৃত্বে একদল পিবিআই পুলিশ দিবাগত রাতে অভিযান চালিয়ে নড়াইলের দিঘলিয়া ইউনিয়নের কুমড়ি মধ্যপাড়া গ্রামের মৃত সোয়েব মোল্যার ছেলে মনিরুল ইসলাম @ মাঈনূল মোল্যা (৩৪) কে আটক করেন। আসামী মাঈনুলকে নড়াইলের বিজ্ঞ সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট নয়ন বড়াল’র আদালতে হাজির করা হবে। সেখানে টনিক হত্যা ঘটনায় মাঈনুল ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তি মুলক জবানবন্দি প্রদান করেন। জবানবন্দি গ্রহন শেষে আদালত তাকে জেল হাজতে প্রেরন করেছেন। উল্লেখ্য ২০১৬ সালের ৫ ফেব্রুয়ারী রাত ১২টার দিকে সৌদি প্রবাসী আমিরুল ইসলাম টনিক নড়াইলের লোহাগড়া পৌর এলাকার মশাঘুনি গ্রামে তার অন্তসত্বা স্ত্রী মাছুরাকে নিয়ে ঘুমিয়ে ছিলেন। ঘুমন্ত অবস্থায় দৃর্বৃত্তের ধারালো ছ্যানদার কোপে মাথায় গুরুত্বর আহত হন টনিক। ঢাকাসহ বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসা শেষে একই বছরের ১৭ ফেব্রুয়ারী মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন তিনি। ঘটনার সাড়ে চার বছর পর মামলাটি পিবিআই তদন্তভার গ্রহন করে দু’মাসের মধ্যে তিনজন আসামীকে গ্রফতার করে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি গ্রহন করেন আদালত। গ্রেফতারকৃতরা হলেন টনিকের চাচাতো ভাই ও মামলার বাদী আবু সাঈদের আপন ছোটভাই তূষার শেখ, তালবাড়িয়া গ্রামের সবুর খানের ছেলে সজিব শেখ ও কুমড়ি মধ্যপাড়ার মনিরুল ইসলাম @মাঈনূল মোল্যা। পিবিআই যশোর এসআই শরীফুল ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, প্রবাসী আমিরুল ইসলাম টনিক ভাটায় ইট বহনীয় ট্রলি কেনার জন্য ১৮লাখ টাকা ব্যাংক থেকে তুলেছেন মর্মে আসামীরা নিশ্চিত হয়ে ডাকাতির উদ্দেশ্যে ওই বাড়িতে প্রবেশ করেন। টনিক তার চাচাত ভাই তুষারকে চিনতে পেরে নাম ধরে ডাক দেয়। চিনে যাওয়ায় তুষার শেখ ধারালো ছ্যানদা দিয়ে টনিকের মাথায় সজোরে কোপ দিয়ে পালিয়ে যায়। ধৃত আসামী মাঈনুল গত সোমবার ৫নভেম্বর বিকালে নড়াইলের বিজ্ঞ আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি প্রদান করেছেন বলেও জানান তিনি।

Please follow and like us:
error

About jahir

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

বিএনপির ৫০০ নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে মামলা

হাইকোর্ট এলাকায় পুলিশের ওপর হামলা ও গাড়ি ভাঙচুরের অভিযোগে বিএনপির ৫০০ নেতাকর্মীকে আসামি করে ...