Breaking News
Home / ঢাকা চট্টগ্রাম সহ বাংলাদেশের সকল ক্যাম্পাস / বশেমুরবিপ্রবি’র শিক্ষার্থীদের সাথে একাত্মতা প্রকাশ করে জাবি ইতিহাস বিভাগের সংহতি সমাবেশ

বশেমুরবিপ্রবি’র শিক্ষার্থীদের সাথে একাত্মতা প্রকাশ করে জাবি ইতিহাস বিভাগের সংহতি সমাবেশ

মামুনুর রশিদ, জাবি প্রতিনিধি:

গোপালগঞ্জ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে ইতিহাস বিভাগ এর অনুমোদন ইউজিসি কর্তৃক না দেওয়াতে সেখানে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের সাথে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাস বিভাগের একাত্মতা প্রকাশ করে সংহতি সমাবেশ করেছে।

বুধবার (১২ ফেব্রুয়ারি) বেলা ১১ টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ মিনারের পাদদেশে এই সংহতি সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

সংহিত সবাবেশে বক্তারা বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশনের কাছে বশেমুরবিপ্রবির ইতিহাস বিভাগ এর অনুমোদন দেওয়ার দাবী জানান।

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় ইতিহাস বিভাগের অধ্যাপক ড. এ কে এম জসীম উদ্দিন বলেন, বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন যথাযথ প্রক্রিয়া মাধ্যমে তিন বছর যাবত ইতিহাস বিভাগে শিক্ষার্থী ভর্তি করেছে যদি তাতে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশনের অনুমোদন ছিলো কিনা এ বিষয় শিক্ষার্থীদের জানা ছিলো না। আমরা এই সকল শিক্ষার্থীদের ভবিষ্যতের কথা বিবেচনা করে ইউজিসি কাছে অনুরোধ করছি তারা যেনো যথাযথ প্রক্রিয়া মেনে বশেমুরবিপ্রবিতে ইতহাস বিভাগ চালু রাখে।

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় ইতিহাস বিভাগের অধ্যাপক ড. মুজাহিদুল ইসলাম বলেন, ইউজিসির বশেমুরবিপ্রবিতে ইতিহাস বিভাগ বন্ধের পদক্ষেপ ও এই বিভাগ চালু রাখার দাবীতে সংহতি প্রকাশ করছি। বিশ্ববিদ্যালয়ে যথাযথ প্রক্রিয়া ঠিক করেই ভর্তি করা হয় যদিও ইউজিসির অনুমোদন ছিলো না কিন্তু এখন বন্ধ করে দিলে তাদের শিক্ষা কন্টিউনিউ করা সম্ভব হবে না।

তিনি আরো বলেন, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে ইতিহাস বিভাগ থাকবে না এটা ভাবা ঠিক নয়। জ্ঞান চর্চার জন্য ইতিহাস ও দর্শন চর্চার কোন বিকল্প নাই। জ্ঞান চর্চায় দর্শন হলো মা আর ইতিহাসকে বলা হয় বাবা। ইতিহাসকে খাটো করে দেখার কিছু নেই। বিজ্ঞানের মাধ্যমেই জ্ঞান চর্চা হয় না। জ্ঞান চর্চার জন্য দেশের প্রতিটি বিশ্ববিদ্যালয় ও কলেজে ইতিহাস থাকা বাধ্যতামূলক করা উচিত। ইতিহাস বিভাগ ছাড়া বিশ্ববিদ্যালয় পূর্ণতা পায় না।

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় ইতিহাস বিভাগের প্রভাষক নাসিমা হামিদ বলেন, আন্দোলনের সাথে সংহতি প্রকাশ বলেন আমরা সবাই চাই ইতিহাস চালু থাকুক তাই এখানে জড়ো হয়েছি। স্কুলে কলেজে ইতিহাস চর্চা থাকলেও বিশ্ববিদ্যালয় গুলোতে ইতিহাস চর্চা করা যাবে না এটা ভাবা ঠিক নয়।

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় ইতিহাস বিভাগের প্রভাষক সাজেদা আখি বলেন, আন্দোলনের সাথে সংহতি প্রকাশ করে বলেন জাতির ইতিহাস জানা থাকা সকলেরই উচিত আর ইতিহাস চর্চায় একটা জাতি অনেক এগিয়ে যেতে পারে। বশেমুরবিপ্রবিতে ইতিহাস বিভাগ বন্ধের সিদ্ধান্ত মেনে নিতে পারছিনা। আমি আশা করি ইউজিসি সকলের দাবী মেনে সকল সমস্যা আমোচনার মাধ্যমে সমাধান করে সেখানে ইতিহাস বিভাগ চালু রাখবে।

উল্লেখ, ২০১৭-২০১৮ সেশন থেকে তিন শিক্ষাবর্ষে ৪১৩ জন শিক্ষার্থীকে বশেমুরবিপ্রবিতে ভর্তি করা হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন থেকে বারবার চেষ্টা করা হলেও বিভাগটির অনুমোদন দেয়নি বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন (ইউজিসি)।

বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রে জানা গেছে, বৃহস্পতিবার (৬ ফেব্রুয়ারি) ইউজিসিতে অনুষ্ঠিত এক সভায় আগামী শিক্ষাবর্ষ থেকে ইতিহাস বিভাগে নতুন শিক্ষার্থী ভর্তি না করার নির্দেশ দেওয়া হয়। এ সময় বিভাগের অনুমোদনও দেওয়া হয়নি। তবে তিন শিক্ষাবর্ষে ভর্তি শিক্ষার্থীদের অনুমোদন এবং তাদের অন্য বিভাগে স্থানান্তরের নির্দেশ দেওয়া হয়। এ খবর ক্যাম্পাসে ছড়িয়ে পড়ার পর থেকে প্রশাসনিক ভবনের সামনে অবস্থান নিয়ে আন্দোলন শুরু করেন শিক্ষার্থীরা। তারা ইউজিসির নির্দেশনা প্রত্যাখ্যান করে প্রশাসনিক ভবনে তালা ঝুলিয়ে দেন। শিক্ষার্থীরা ইতিহাস বিভাগের অনুমোদন না পাওয়া পর্যন্ত আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দেন।

Please follow and like us:
error

About jahir

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

চাকরি স্থায়ীকরণের দাবিতে রাবিকর্মচারিদের অবস্থান কর্মসূচি

রাবিপ্রতিনিধি: চাকরি স্থায়ীকরণের দাবিতেরাজশাহীবিশ^বিদ্যালয়প্রশাসনভবন ঘেরাওকরেঅবস্থানকর্মসূচিকরেছেদৈনিকমজুরীভিত্তিতে (মাস্টার রোল) কর্মচারিরা। সোমবার (১০ ফেব্রæয়ারি)ক্যাম্পাসে মৌনমিছিল ...