Breaking News
Home / অপরাধ / চাঁদপুরে ৫ শিক্ষার্থীকে থুতু খাওয়ালেন শিক্ষক

চাঁদপুরে ৫ শিক্ষার্থীকে থুতু খাওয়ালেন শিক্ষক

চাঁদপুরে ফরিদগঞ্জ উপজেলায় পাঁচ শিক্ষার্থীকে থুতু খাওয়ানোর অভিযোগ পাওয়া গেছে সহকারী স্কুলশিক্ষক মোশারফ তালুকদারের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় তোলপাড়ের সৃষ্টি হয়েছে।

বুধবার বিকালে ওই শিক্ষার্থীদের অভিভাবকদের পক্ষে জেলা শিক্ষা অফিসার বরাবর লিখিত অভিযোগ করা হয়।

এর আগে রোববার উপজেলা ৫নং গুপ্টি পূর্ব ইউনিয়নের শ্রীকালিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে এ ঘটনা ঘটে।

জানা গেছে, রোববার দুপুরে শ্রীকালিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক মোশারফ তালুকদার চতুর্থ শ্রেণির নিয়মিত ক্লাস নিচ্ছিলেন। ক্লাসের রুটিন অনুযায়ী বাড়ির কাজ জমা না দেয়ায় শিক্ষার্থী সাবিকুন্নাহার, ফাতেমা আক্তার, মারিয়া আক্তার, শামীম হোসেন ও জনি হোসেনকে শাসনের একপর্যায়ে তাদের গাল চেপে ধরে নিজের থুতু খাইয়ে দেন।

ওই শিক্ষার্থীরা বাড়ি গিয়ে তাদের অভিভাবকদের ঘটনাটি জানালে তারা বিষয়টি প্রধান শিক্ষককে জানান।

প্রধান শিক্ষকের অনুরোধে অভিভাবকরা পর দিন বিদ্যালয়ে এলেও ওই দিন বিদ্যালয়ে আসেননি শিক্ষক মোশারফ। এতে ক্ষোভের সৃষ্টি হয় অভিভাবকদের মধ্যে। তবে প্রধান শিক্ষক আ. হান্নান শিক্ষার্থীদের অভিভাবকদের কাছে ওই শিক্ষকের পক্ষ হয়ে ক্ষমা চেয়েছেন বলে জানা যায়।

পরে বিক্ষুব্ধ অভিভাবকদের পক্ষে মো. মহিউদ্দিন বুধবার বিকালে চাঁদপুর জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার বরাবর সহকারী শিক্ষক মোশারফের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ দেন।

কয়েকজন অভিভাবক জানান, চতুর্থ শ্রেণির ওই পাঁচ শিক্ষার্থী বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ও অভিযুক্ত শিক্ষকের সামনেই ঘটনা বিস্তারিত বলেন।

এ ব্যাপারে অভিযুক্ত সহকারী শিক্ষক মোশারফ তালুকদার বলেন, বিষয়টি এমনটি রূপ নেবে ভাবতে পারিনি। তবে একটি পক্ষ আমার বিপক্ষে কাজ করছে।

বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আ. হান্নান বলেন, ঘটনার দিন আমি বিদ্যালয়ের কাজে উপজেলায় ছিলাম। পরে শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের কাছে এ ঘটনার নিন্দা জানিয়ে শিক্ষকের পক্ষ হয়ে ক্ষমা চেয়েছি।

এ বিষয়ে জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো. শাহাবউদ্দিন জানান, গত কিছু দিন আগে ওই শিক্ষকের বিরুদ্ধে অন্য একটি ঘটনায় ব্যবস্থা নেয়া হয়। অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্তপূর্বক এ ঘটনায় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

Please follow and like us:
error

About jahir

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

সার্টিফিকেট নেই, ৩০ বছর ধরে বিশেষজ্ঞ ডাক্তার

চিকিৎসাশাস্ত্রে কোনো প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষা না থাকলেও প্রায় ৩০ বছর ধরে রোগী দেখছেন। ...