Breaking News
Home / Uncategorized / ৪০ বছর এর পরেও তারুণ্য ̈ফিরে আসবে খুব সহজে এবং খুব তাড়াতাড়ি ।

৪০ বছর এর পরেও তারুণ্য ̈ফিরে আসবে খুব সহজে এবং খুব তাড়াতাড়ি ।

বয়স হলেও আপনার ত্বক আবারও তরুণ্য হতে পারে, প্লাষ্টিক সার্জারি বা ইনজেকশন ব্যাবহার না করে। “এই সাধারন সত্যটি অনুধাবন করুন এবং কারও কথা শুনবেন না। গত ১৫ দিন ধরে আমেরিকার একটি টেলিভিশন চ্যানেলে প্রসাধন জগতে নতুন কিছু সম্পর্কে আলোচনা হয়েছিল। তারা একটা দ্রুত কার্যকরী ঔষধের কথা বলেছিল যা সবারই হাতের নাগালে এবং সাধ্যের ভিতর

টেলিভিশনের প্রোগ্রামের পরে প্রফেসর ডাঃ নওফল আমছার বিশেষ প্রসাধন চিকিৎসার উপরে আমাদের সাক্ষাৎকার দিয়েছিলেন।

প্রতিবেদক: ডাক্তার নওফল আমছার আমাকে বলুন যে,বোটক্স ইনজেকশন বা প্লাষ্টিক সার্জারি ৩৫ বছর বয়সের পরে ত্বকের বয়স বুদ্ধি রোধ করতে পারে?

ডাঃ নওফল আমছার: অবশ্যই এটা সত্যি ̈না বোটক্স ইনজেকশনের অনেক জঠিলতা আছে যেমন: এতে মুখের ̄স্বাভাবিক গড়ন পরিবর্তন হয়ে যায়। এতে খুব মারাত্বক প্রভাব ঘটে। প্লাষ্টিক সার্জারি করলে বয়সের ভাজ দুর হয় কিন্তু খুব তাড়াতাড়ি ফেরত আসে। তবে আমার কিছু ব্যাক্তিগত প্রসাধনি আছে যা সহজেই এই সমস্যা দুর করে। কিন্তু সব প্রসাধনি তা পারেনা ও লাইসেন্সকৃত নয়। চামড়ায় বয়সের ভাজ পরবে, এটাই বিজ্ঞান সম্মত। যদি তুমি এটার গোপন রহস্য জান তবে তোমার বয়স ১০/২০ বছর কমিয়ে ফেলতে পার। হাজার হাজার রোগিরা কোন ব্যায়বহুল প্লাস্টিক সার্জারি বা ইনজেকশন ব্যাবহার না করে এই প্রসাধনি ব্যাবহার করে উপকৃত হচ্ছেন। রহস্যটা হচ্ছে ত্বকের পুষ্টি ফিরিয়ে আনা ও চামড়ার কোষ ̧পুনরুজ্জীবিত করা।

প্রতিবেদক: হ্যা, কিন্তু ৪৫ বছর পরে কি ত্বকের তারুণ্য ফিরিয়ে আনা সম্ভব?

ডঃ নওফল আমছার: আমি আমার ৫০ উর্ধ্ব অনেক রোগীকে ফিরিয়ে দিয়েছি ব্যাথা ব্যাতীত ।

প্রতিবেদক: আপনি কি আপনার পরিবার ও বন্ধুবান্ধবদেরও কি এই প্রক্রিয়া কাজে লাগাচ্ছেন?

ডঃ নওফল আমসার: হ্যাঁ আমি আমার স্ত্রীকে এই প্রসাধনি ব্যাবহার করতে দিয়েছি।এটি ব্যাবহারের ফলে,এখন অনেক লোকই ভাবে যে,সে আমার কণ্যা যদিও সে আমার থেকে দুই বছরের বড়, তার বয়স ৪৭।

আমার বেশিরভাগ রোগির বয়সই ৪০ উর্ধ্ব কিন্তু তাদের মুখে বয়সের ছাপ পড়েছে। তারা আমার কাছে অনেক রকম সমস্যার কথা বলে: গাড় বয়সের দাগ, ঠোট এবং চোখ ফুলে যাওয়া, মুখের গড়ন ফুলে যাওয়া, আরও অনেক কিছু। এই সমস্যা গুলো খুবই দুঃখজনক এবং জীবনকে কঠিন করে ফেলে।

৭৪ ভাগ পুরুষ মানুষই বলে যে, বয়সের ছাপ পড়া বেশির ভাগ মহিলায় যৌন আকর্ষন হারায়। কিন্তু অনেকেই বিশ্বাস করে যে, ভবিষ্যতের বয়সের ছাপ কোন সমস্যা নয়। আর মহিলারা অভিযোগ করে যে, তাদের জীবনই শেষ।আমি তাদের বলি,এই বিশেষ প্রসাধনি ব্যাবহার কর এবং এ সুযোগ ছেড়ে দিওনা।

প্রতিবেদক: কিভাবে আমারা ত্বকের তারুণ্য ফিরে আনব?

ডঃ নওফল আমছার: আমি সম্প্রতি আমার রোগিদের মুখের ব্যায়াম করি্যেছি এবং ৯৬ রকমের জঠিল ব্যায়াম দিয়েছি। এগুলো খুবই কার্যকর কিন্তু কঠিন ও দীর্ঘ মেয়াদি। অনেক লোকেরই কঠিন সময় যাচ্ছে, তারা শক্তি হারাচ্ছে কিন্তু প্রতিদিনকার ব্যায়াম করতে পারছেনা। তারা সহজেই আশা ছেড়ে দেয়। এই কারনেই আমরা রোগিরদের জন্য অন্য ̈পদ্বতি আবিষ্কার করার চেষ্টা করেছি এবং পেরেছি।

প্রতিবেদক: তাহলে তো বেশ ভালো, আমার পাঠকদেরকে এ বিষয়ে কিছু বলুন।

ডাঃ নওফল আমছার: আমাদের সোন্দর্য প্রসাধনি এবং ̄স্ব্যাস্থকেন্দ্র অবিশ্বাস্য রকম আধুনিক পন্য এনেছে। আমি যখন প্রথম এটার সম্মন্ধে শুনেছি তখন হেসেছিলাম। যখন এটা ব্যাবহার করলাম তখন আশ্চর্য ̈হলাম। ৩৪-৩৬ জন মহিলারা একটি গবেষনায় অংশ গ্রহন করেছিল এবং তাদের বয়স ১০/২৫ বছর কমে গিয়েছিল।

প্রতিবেদক: এটা কি ধরনের চিকিৎসা?

ডাঃ নওফল আমছার: আমি বিশেষ ধরনের হোয়াইটিনিং লোশন এর কথা বলছি। এটা এমন একটি চিকিৎসা যা খুব কম সময়েই তোমাকে ফলাফল এনে দেবে, বলতে গেলে এক সপ্তাহ। লোশনটা দেখতে আকর্ষনীয় এবং এক মাস সময়ের মধ্যে এই লোশনটা পেতে পারবে। এটা খুব তাড়াতাড়ি ত্বকের উজ্জলতা বাড়ায়।

এই আশ্চর্য ̈ ফলাফল সম্ভব হয়েছে নরওয়ে এবং আমেরিকায় বিজ্ঞানীদের চেষ্টার ফলে। এখন পৃথিবীর সব দেশেই হোয়াইটিনিং লোশন পাওয়া যাচ্ছে। ব্যাপক পরিচিতি এবং কার্যকারিতার জন্য বাজারে চায়না তৈরী অনেক হোয়াইটিনিং লোশন পাওয়া যায় । কিন্ত আপনাকে হোয়াইটিনিং লোশন দেখে নিতে হবে ।

  • বহিস্ত্বক
  • অন্তঃত্বক
  • ত্বকের নিচের ফ্যাট ফাইবার

ত্বকের গঠন

প্রতিবেদক: এই লোশনটি কিভাবে কাজ করে?

ডাঃ নওফল আমছার: এর মধ্যে ̈অলৌকিক কিছু নাই, শুধু সাধারণ বিজ্ঞান সম্মত। এই লোশনে আছে পেপটাইস সিগনালস যা ত্বককে পুনরুজ্জীবিত করে। আর অন্য ̈দিকে এই লোশনের আসল কাজ হচ্ছে ক্লোজান উৎপন্ন করে কোষের ভিতরে মেট্রিক্স তৈরী করে। এর চেয়ে কার্যকর কোন কিছুই নাই ত্বককে পুনরুজ্জীবিত করার জন্যে তার পরেও আমেরিকান কিছু গাছের রষ যোগ করে এই ভেষজকে আরও শক্তিশালী করা হয়।

তুমি যদি এটা ব্যাবহার কর তবে ৯৩০০০০ কোষ কার্যক্ষম হবে। এইজন্যেই ত্বকের তারুণ্য আসে। এখানে মুল ব্যাবপারটা হল দায়িত্ব।

প্রতিবেদক: শুনতে বিস্ময়কর। ৪০ বছরের উর্ধে সাধারন লোকের উপর এটা কিভাবে কাজ করে?

ডাঃ নওফল আমছার: নষ্ট কোষ গুলি পনুরুজ্জিবীত করার প্রক্রিয়ার মাধ্যমে কাজ করে এবং তোমার ত্বক নতুন কোষের মাধ্যমে তারুণ্য লাভ করে। হোয়াইটিনিং লোশন ত্বকের কোষ নষ্ট হওয়া থেকে বিরত রাখে এবং শরীরের কোষে গিয়ে পোঁছায়।বয়স বাড়ার কারনকে রোধ করে। মাঝে মাঝে লক্ষন থেকে মুক্তি পাওয়া যায়না। লোশনটা ত্বকের বয়স বাড়া এবং ত্বক শুকিয়ে যাওয়া রোধে ভাল কাজ করে।অল্প রক্ত প্রবাহ ও ধীর কোষের জন্যে ভিন্ন ফলাফল দেবে।

প্রথম দিনেই হোয়াইটিনিং লোশন কোষে তারুণ্য আনে এবং ২/৩ সপ্তাহ পর লোশনটি পরিপূর্ণ কাজ করে ফেলবে। আর প্রথম কাজটা হলো মন্দভাবে বয়স বাড়া ও আবার পূনরায় আগমনের ক্ষেত্রে এই হোয়াইটিনিং লোশন বাধা দেয়।

প্রতিবেদক: আমাকে বলেন হোয়াইটিনিং লোশন কি শুধু মাত্র ত্বকের ভাজ বা দাগ কমায়?

ডাঃ নওফল আমছার : এই লোশনটি একেবারে কোষে গিয়ে কাজ করে, রক্ত প্রবাহ বাড়ায় এবং বয়স বাড়াকে প্রতিরোধ করে ধবংস প্রায় কোষ গুলোকে বাচিয়ে দেয়।এটা শিরায় শিরায় রক্ত প্রবাহ উদ্দিপ্ত করে। এতে ত্বকের কালো দাগ এবং ফোলা দূর হয়, এটা চামড়ার গড়ন শক্তিশালী করে। ক্লোজেনের ̄স্বাভাবিক উৎপাদন বৃদ্ধি করে।বয়সের ছাপ, দাগ, ফোলা, এবং চোখের নিচে কাল কালি ও ফোলা মুখ ঠিক করে। এই লোশনটি সত্যি কাজ করে।

প্রতিবেদক: আসলে এটা খুবই অদ্ভুদ চিকিৎসা। এটা কি আসলেই সমস্যা থেকে স্থায়ী মুক্তি দেবে নাকি ত্বকের সাময়িক দুর্বলতা দূর করবে?

ডাঃ নওফল আমছার: হোয়াইটিনিং লোশন হচ্ছে ত্বকের বয়স বাড়ার কারনটাকে দূর করে। (ব্যাবহারের শুরুতেই) এবং দৃশ্যমান সবগুলি সমস্যা পরাপুরি দূর করে। আমাকে বিশ্বাস করুন, আমার বহু বছরের অভিজ্ঞতায় আমি পরিক্ষা করে দেখেছি, এতে আরোগ্য হয়। এবং বেশিরভাগ মহিলাদের জন্যে এটা সহজ, সরল এবং সল্প ব্যায়ে পাওয়া সম্ভব।

প্রতিবেদক: আপনি বলছেন যে হোয়াইটিনিং লোশন খুব কম টাকায় কেনা সম্ভব। সবাই কি এটা কিনতে পারবে?

ডাঃ নওফল আমছার: হ্যা, সবাই এটা কিনতে পারবে। এবং অনলাইন এই লোশন দিয়ে ফার্মেসী ব্যাবসা পরিচালনা করতে পারবে। এতে করে ফার্মেসীতে খুব বেশি বিক্রি হবে। কিন্তু আমরা এই লোশনের ব্যাবসা ফার্মেসীতে করতে পারিনা। কেন এতে ফার্মেসীর অন্য ব্যাবসা ধবংস হয়ে যায়।অনেক বছর ধরে লোকেরা বিভিন্ন ধরনের তারুণ্য ধরে রাখার জন্যে লোশন কিনছে। তারা চায় তাদের দেখতে ভাল লাগুক। এই লোশনটি তাদের খুশি করার জন্যে । এই জন্যে আমরা হোয়াইটিনিং লোশন কে একটা ওয়েবসাইটের মাধ্যমে বিক্রি করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।

পৃথিবীর সবার জন্যে একসাথে কাজ করা সম্ভব না তাই আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি পর্যায়ক্রমে বিভিন্ন দেশে একটির পর আরেকটি প্রোগ্রাম করার। বর্তমানে এটি মালয়েশিয়ায় এবং বাংলাদেশে বিক্রি হচ্ছে এবং খুবই সাশ্রয় এবং প্রমোশন মূল্যে পাওয়া যাচ্ছে।

প্রতিবেদক: এই প্রমোশন কতদিন যাবৎ চলবে? প্রমোশন শেষ হলে এই হোয়াইটিনিং লোশন কিভাবেই আবার অর্ডার করবে ?

ডাঃ নওফল আমছার:হ্যা এটা সতি ̈, এই পরিকল্পনা শেষ হবে 23.02.202015.10.2020. ইং সালে। তারপরও দরকার হলে ঐ সাইটে গিয়ে অনুরোধ করতে হবে। তাই যারাএই ভালো লোশন পেতে চায়, তারা তাড়াতাড়ি আসুন।

গবেষনা: তোমার বয়স ধরে রাখার জন ̈ তুমি কি করছ?

বিভিন্ন ধরনের প্রসাধনি:
২৩%
সাধারন ঔষধ :
৮%
আমি সমাধান খুঁজছি:
১৭%
আমি এটাকে অসম্ভব মনে করিনা:
৫%

প্রতিবেদক: ডাঃ নওফল আপনাকে এই সাক্ষাৎকারের জন্যে ধন্যবাদ, আপনি আমাদের পাঠকের জন্যে শেষ করার আগে কিছু বলতে চান?

ডাঃনওফল আমছার: হ্যা অবশ্যই, আমি আমার পাঠকদেরকে বয়স ধরে রাখার বিষয়ে বলতে চাই। এমনকি ৫০/৭০ বছরের মহিলা তাদের বয়স১০/২০ বছর কমিয়ে ফেলতে পারে।

এখনই আপনার এই লোশন ব্যবহার শুরু করা সর্বত্তম।কারন আবহাওয়ায় আদ্রতা এখন বেশি আর এতে ত্বক এখন শুকিয়ে যাওয়ার প্রবণতা আছে। এখন বেশি এবং হজমে বিঘ্ন ঘটার সময়ও উচ্চ রক্তচাপ এবং মুখের মাংপেষিতে অক্সিজেনের প্রভাব বেশি। এখন তারুণ্য ৬৭ ভাগ বেশি ঘটবে অন্য ঋতুর তুলনায়। এবং ত্বক পনরুদ্ধার ১০০% ভাগ বেশি ঘটে এই সময়।

নকল হোয়াইটিনিং লোশন থেকে সাবধান! মুল লোশনটি অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে পাওয়া যাবে। অথবা আপনি ফরম পূরন করতে পারেন। মনে রাখববেন যে ১৭.১০.২০২০ইং তারিখ পর্যন্ত বিশেষ মূল্যে পাওয়া যাবে ।

Fatinah Adam, 75 (Malaysiya)

Humaira Puteri, 67 (Indonisia)

Medina Rayyan, 62 (Philiphine)


হোয়াইটিনিং লোশন নিঃসন্দেহে কার্যকরী আপনার ত্বকের জন্য।আজই আপনার ত্বকের যত্নে এই পুনর্জীবন কোর্সটি শুরু করার সেরা সময়। বাতাসে বর্ধিত আর্দ্রতা, শরীরে ত্বক হজমকরণ, ত্বকে রক্ত সঞ্চালন, রক্ত প্রবাহ বৃদ্ধি, এবং মুখের পেশীগুলিতে অক্সিজেন প্রবাহ বৃদ্ধি করবে ।

নকল হোয়াইটিনিং লোশন থেকে সাবধান! আসল হোয়াইটিনিং লোশন পাওয়া যাবে কেবল আমাদের এই অফিশিয়াল ওয়েবসাইট থেকে এবং আপনি ওয়েবসাইটে ফর্ম পূরণ করলে আমাদের বাংলাদেশ এজেন্ট আপনার সাথে যোগাযোগ করবে

 

Please follow and like us:
error

About jahir

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

উহানের ল্যাব থেকেই ছড়িয়েছিল করোনা? এবার চীনকে এক হাত নিল ইংল্যান্ড

চীন থেকেই যে করোনা ভাইরাস যে ছড়িয়েছিল সে সম্পর্কে একপ্রকার নিশ্চিত সারা ...