Breaking News
Home / খেলা / ৫৬০ রানে ইনিংস ঘোষণা বাংলাদেশের

৫৬০ রানে ইনিংস ঘোষণা বাংলাদেশের

সফরকারী জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সিরিজের একমাত্র টেস্টে ৫৬০ রানে ইনিংস ঘোষণা করেছে বাংলোদেশ। মুশফিকের দ্বি-শতক ও মুমিনুলের শতকের ওপর ভর করে ১৫৪ ওভারে ৬ উইকেট হারিয়ে ৫৬০ রান তুলেছে টাইগাররা। এর ফলে প্রথম ইনিংসে জিম্বাবুয়ের চেয়ে ২৯৫ রানে এগিয়ে ইনিংস ব্যবধানে জয়ের স্বপ্ন দেখছে স্বাগিতকরা।

ব্যক্তিগত ৫৫ রান নিয়ে মুমিনুল ও মুশফিক ২০ রানে অপরাজিত থেকে তৃতীয় দিনের খেলা শুরু করেন। শুরু থেকেই দেখে খেলতে থাকেন মুমিনুল। ১৫৬ বলে ক্যারিয়ারের নবম সেঞ্চুরি তুলে নেন তিনি। তার ইনিংসে ছিল ১২টি চারের মার।

সেঞ্চুরিটি মুমিনুলের জন্য বড় একটি চাপ কমিয়ে দিয়েছে বললেও অত্যুক্তি হবে না। কারণ টাইগারদের অধিনায়কত্বের ভার নেয়ার পর থেকেই হাসছিলো না তার ব্যাট। এমনকি শেষ কয়েকটি ইনিংসে কোনো ফিফটির দেখাও পাননি তিনি। সেখান থেকে এমন সেঞ্চুরি নিঃসন্দেহে আত্মবিশ্বাস বাড়িয়ে দেবে।

জিম্বাবুয়ের প্রথম ইনিংস থেকে ২৫ রানে পিছিয়ে থেকে এদিন মাঠে নামে টাইগাররা। তবে আধঘণ্টা না যেতেই জিম্বাবুয়ের স্কোর ছাড়িয়ে লিড নেয় বাংলাদেশ। ৩ উইকেটে ৩৫১ রান নিয়ে মধ্যাহ্ন বিরতিতে যায় টাইগাররা।

মধ্যাহ্ন বিরতির পরপরই টেস্ট ক্যারিয়ারের সপ্তম শতক তুলে নেন মি. ডিপেন্ডেবল। মাত্র ১ রানের জন্য শতকের অপেক্ষা নিয়ে লাঞ্চে গিয়েছিলেন মুশফিক। বিরতি থেকে ফিরে তিন অংকের ম্যাজিক ফিগারে পৌঁছাতে সময় নেন মাত্র ৭ বল। এন্দোলভুর বলে লং অন দারুন এক বাউন্ডারির মেরে শতক পূর্ণ করেন মুশফিক।

মুশফিক-মুমিনুলের ব্যাটে দুর্দান্ত গতিতে এগিয়ে যেতে থাকে বাংলাদেশের রান। নিজেদের ইতিহাসে চতুর্থ ‍উইকেট জুটিতে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ২২২ রান তুলে বিচ্ছিন্ন হন তারা। দলীয় ৩৯৪ রানের মাথায় এন্দোলভুর বলে ফিরতি ক্যাচ দিয়ে সাজঘরে ফেরেন অধিনায়ক ‍মুমিনুল। ২৩৪ বলে ১৩২ রান করেন তিনি।

এরপর নতুন ব্যাটসম্যান মোহাম্মদ মিথুনকে সঙ্গে নিয়ে রানের গতি অব্যাহত রাখেন মুশফিক। ওয়ানডে স্টাইলে খেলা মিথুন বিদায় নেন দলীয় ৪২১ রানে। ২১ বলে ১৭ রান করে এন্দোলভুর শিকারে পরিণত হন মিথুন।

এরপর লিটন দাসের অর্ধশতকে বাংলাদেশের রান ৫০০ পেরোয়। দলীয় ৫৩২ রানের মাথায় ৫৩ রান করে সাজঘরে ফেরেন লিটন।

দুর্দান্ত ব্যাটিং করা মি. ডিপেন্ডেবেল ধীরে ধীরে এগিয়ে যান ক্যারিয়ারের তৃতীয় ডাবল হান্ড্রেডের দিকে। ১৫৪তম ওভারের দ্বিতীয় বলে আসে সেই কাঙ্ক্ষিত মুহূর্ত। এন্দোলভুর বলে চার মেরে নিজের দ্বি-শতক পূর্ণ করেন মুশফিক। প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে তিনটি দ্বি-শতকের মালিক এখন তিনি। একটির বেশি দ্বিশতক নেই আর কোনো টাইগার ব্যাটসম্যানের।

মুশফিকের দ্বি-শতক পূর্ণ হওয়ার পরপরই ইনিংস ঘোষণা করে বাংলাদেশ। ৩১৮ বলে ২০৩ রানে অপরাজিত থাকেন মুশফিক। তার ইনিংসটি সাজানো ছিলো ২৮টি চারের মারে। অপরপ্রান্তে ১৯ বলে ১৪ রানে অপরাজিত থাকেন তাইজুল ইসলাম।

ইনিংস হার এড়াতে লড়ছে জিম্বাবুয়ে। তার জন্য ২৯৫ রানের পাহাড় ডিঙাতে হবে অতিথিদের।

Please follow and like us:
error

About jahir

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

আরও ২০ লাখ দেবে ‘সাকিব আল হাসান ফাউন্ডেশন’

ক’দিন আগে ২০ লাখ টাকার একটি ফান্ডের ঘোষণা দিয়েছিলেন সাকিব আল হাসান। ...