Breaking News
Home / রাজশাহীর সংবাদ / আওয়ামী লীগ নেতা সুজনের বিরুদ্ধে মিথ্যাচার

আওয়ামী লীগ নেতা সুজনের বিরুদ্ধে মিথ্যাচার

আলিফ হোসেন, তানোর
রাজশাহীর পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী, প্রসিদ্ধ ব্যবসায়ী, তরুণ, আদর্শিক, মেধাবী নেতৃত্ব ও পরিচ্ছন্ন ব্যক্তি ইমেজ সম্পন্ন নেতা আবুল বাসার সুজনের বিরুদ্ধে মিথ্যাচার করা হয়েছে। কর্মী ও জনবান্ধব নেতা সুজনের জনপ্রিয়তায় ভীত ও ঈর্ষান্তীত হয়ে তাকে বির্তকিত করার উদ্দেশ্যে আওয়ামী লীগের লেবাসধারীরা তার বিরুদ্ধে মিথ্যাচার শুরু করেছে। সূত্র জানায়, চলতি বছরের ১৭মার্চ ঢাকা থেকে প্রকাশিত একটি দৈনিকে মিথ্যা-ভিত্তিহীন-বানোয়াট তথ্য দিয়ে সুজনের বিরুদ্ধে মিথ্যা খবর প্রকাশ ও সংশ্লিস্ট এলাকায় বিনামূল্য এসব পত্রিকা করা হয়েছে। এদিকে প্রকাশিত খবরে বলা হয়েছে সুজন হাট ইজারদার ও রাজশাহী শহরের বাসিন্দা হয়ে উড়ে এসে জুড়ে বসে আওয়ামী লীগ নেতা হবার চেস্টা করছে ও তানোর পৌরসভা নির্বাচনে প্রার্থী হবার ঘোষণা দিয়েছে, খবরে আরো বলা হয়েছে সুজন তানোরের বাসিন্দা না হয়েও শুধু হাট ব্যবসার সূত্রধরে এমপি ফারুক চৌধূরীর আস্থাভাজন হয়ে তানোরের একটি পৌরসভায় নির্বাচন করতে চাইছে। স্থানীয়দের ভাষ্য, তানোরের বাসিন্দা না হলে যদি তানোর পৌরসভা নির্বাচন করা না যায়, তাহলে মহামান্য রাস্ট্রপতি ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রী কি ঢাকার বাসিন্দা অথবা স্থানীয় সাংসদ কি তানোরের বাসিন্দা বা যিনি এই খবর প্রকাশ করেছেন তিনি কি রাজশাহীর বাসিন্দা, আসলে শুধু বিরোধীতার জন্য বিরোধীতা করে সুজনের পরিচ্ছন্ন ব্যক্তি ইমেজ বির্তকিত করতেই আওয়ামী লীগের লেবাসধারী গোষ্ঠি জামায়াত-বিএনপির আর্থিক পৃষ্ঠপোষকতায় তাদের বি-টিম হয়ে তাদের এজেন্ডা বাস্তবায়নের জন্য একশ্রেণীর দায়িত্বহীন গণমাধ্যমকর্মীর দ্বারা সুজনের বিরুদ্ধে উদ্দেশ্যেপ্রণোদিত খবর প্রকাশ করিয়েছে। আবার যিনি এই খবর প্রকাশ করেছেন তিনিও তো কদিন আগেও হাট ইজারার একটি বিপ্ততির জন্য পৌরসভার দুয়ারে দুয়ারে ধর্না দিয়েছেন, হাট ইজারার সুবিধা নেয়া তার বৈধ আর কোটি কোটি টাকা বিনিয়োগ করে ইজারা ব্যবসা করা অবৈধ না কি ? আসলে নেপথ্যে অন্যকিছু রয়েছে।
স্থানীয় রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের অভিমত, পৌরসভার হাট ইজারা নিয়ে ব্যবসা করায় যদি রাজনীতি করা না যায়, তাহলে হাটের ইজারা বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে অর্থ নেয়া সেটা কি তারা করতে পারে, অথবা হাট ইজারার টাকায় পৌরসভার মেয়র-কাউন্সিলর, কর্মকর্তা-কর্মচারীরা বেতন-ভাতা নেয় সেটা কি নিতে পারে বা সেই টাকায় পৌরসভার উন্নয়ন কি ? করতে পারেন ? সেই প্রশ্ন তাদের কাছে যারা এমন মানহানিকর খবর প্রকাশ করে জনমনে বিভ্রান্তি ছড়াচ্ছে। তারা আরো বলেন, রাজনীতিতে প্রতিষ্ঠিত ব্যবসায়ী ও বিত্তশীল পরিবারের প্রয়োজন তা না হলে বিত্তহীনরা জনপ্রতিনিধি নির্বাচিত হয়েই লুটপাটে জড়িয়ে পড়ছে দীর্ঘদিন ধরে যা পৌরসভার মানুষ দেখছেন। তাদের মতে তানোরের বাসিন্দা না হলে উন্নয়ন হবে না, তানোর পৌরসভা ও মুন্ডুমালা পৌরসভা সৃস্টির পর থেকে তানোরের মানুষ মেয়রের দায়িত্ব পালন করে আসছে তারা কতটা উন্নয়ন করেছেন সেটা পৌরবাসীর কাছে দৃশ্যমান। তানোর পৌরসভা প্রতিষ্ঠার পর থেকে মেয়রগণ পৌরবাসীকে যা দিতে পারেননি সুজন প্রার্থী হবার ঘোষণা দিয়ে মাত্র কয়েক দিনের প্রচারণায় তার দ্বিগুন দিয়েছে আর এটাই সুজনের অপরাধ। তারা দিতে পারেনি কিšত্ত সূজন কেনো দিল, সুজন প্রার্থী হলে তাদের কপাল পুড়বে তায় যেকোনো মূল্য তারা সুজনকে সরাতে চাই। কিšত্ত তারা সেটা পারবে না নিশ্চিত হয়ে সুজনের পরিচ্ছন্ন ব্যক্তি ইমেজক্ষুন্ন করতে এসব মিথ্যাচার শুরু করেছে,তবে তাদের সেই স্বপ্ন উবে গেছে। কারণ সুজকে বির্তকিত করা যায় এমন একটি তথ্য-উপাত্য নাই যা দিয়ে সুজনকে বির্তকিত করা যায় আর বিষয়টি পৌরবাসীর কাছে স্পস্ট হওয়ায় তারা বিপাকে পড়েছে বলে একাধিক সূত্র নিশ্চিত করেছে। এবিষয়ে জানতে চাইলে তানোর পৌর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ওয়াজির হাসান প্রতাপ সরকার বলেন, তানোর পৌর আওয়ামী লীগের সিদ্ধান্তে আবুল বাসার সুজনকে আওয়ামী লীগের মনোনয়নের বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়েছে। তিনি বলেন, সুজন আদর্শিক আওয়ামী লীগ পরিবারের সন্তান দলের দূর্দীনে দলকে সাংগঠনিকভাবে গতিশীল রাখতে বিপুল অঙ্কের অর্থ ব্যয় করেছে, তাকে নিয়ে পৌর আওয়ামী লীগে কোনো দ্বিমত নাই। তিনি বলেন, যারা মতলববাজ তারা দলের নেতাকর্মীদের মধ্যে বিভ্রান্তি ছড়াচ্ছে। #

Please follow and like us:
error

About jahir

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে কর্মহীন দুঃস্থদের মাঝে গাবতলী সাবেকএমপি লালু প্রদত্ত ত্রান সামগ্রী নেপালতলী ও দক্ষিনপাড়া’য় বিতরন

আল আমিন মন্ডল, বগুড়া প্রতিনিধিঃ বিএনপি চেয়ারপার্সন দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া ও ...