Breaking News
Home / Uncategorized / ঢাকায় নেমেছে সেনাবাহিনী

ঢাকায় নেমেছে সেনাবাহিনী

রাজধানী ঢাকায় নেমেছে সেনাবাহিনী। দুই সিটি করপোরেশনে চারটি প্রধান ক্যাম্প এবং ১৭টি সাব ক্যাম্পের মাধ্যমে ঢাকা জেলা প্রশাসনকে সহায়তা করতে মাঠে রয়েছেন তারা। সরকারি নির্দেশনা না মেনে ঘরের বাইরে যারা অযথা ঘোরাঘুরি করবেন এবং যারা হোম কোয়ারেন্টাইন মানছেন না তাদের প্রতি কঠোর হবেন বলে জানিয়েছে জেলা প্রশাসন।

বুধবার (২৫ মার্চ) সকালে আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ পরিদফতরের (আইএসপিআর) সহকারী পরিচালক রাশেদুল আলম বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, ‘সেনাবাহিনী মঙ্গলবার থেকেই জেলা প্রশাসনের সঙ্গে কাজ শুরু করেছে। গতকাল ছিল মিটিং আর আজ মাঠে রয়েছে সৈন্যরা। তবে কোথায় কত প্লাটুন সেনা সদস্য রয়েছে তা বলতে পারছি না।’

জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে, বিশ্বব্যাপী মহামারী আকার ধারণ করা করোনাভাইরাস মোকাবিলায় সরকারের পক্ষ থেকে বিভিন্ন নির্দেশনা থাকলেও তা মানছে না সাধারণ মানুষ। এখনও কারও মধ্যে তেমন সচেতনতা দেখা যাচ্ছে না। স্বাভাবিক দিনগুলোর মতোই সবাই রাস্তায় চলাচল করছে। বিদেশ ফেরত কেউই মানছে না হোম কোয়ারেনটাইন। ইচ্ছে মতো ঘোরাফেরা করছেন। এমন পরিস্থিতিতে সারাদেশে মাঠ পর্যায়ে সশস্ত্র বাহিনী নামানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার।

জানা যায়, করোনা পরিস্থিতি নিয়ে সরকারের পদক্ষেপগুলো শতভাগ সফল করতে কঠোর অবস্থান নেওয়া হয়েছে। বিশেষ করে আইসোলেশন এবং কোয়ারেনটাইন প্রতিষ্ঠিত করতে সশস্ত্রবাহিনী দায়িত্ব পালন করবে। এছাড়া সাধারণ মানুষের গণজমায়েত বন্ধে বিভিন্ন জনসচেতনতা কার্যক্রম হাতে নেওয়া হয়েছে। বাজারে নিত্যপণ্য ও খাবার সরবরাহ নিশ্চিত করতে স্থানীয় প্রশাসকে সাহায্য করবে সেনাবাহিনী। বাজার, ওষুধের দোকান, মুদি দোকান, হোটেল ছাড়া সব কিছু বন্ধ থাকবে। বিনা প্রয়োজনে কেউ বাড়ির বাইরে বের হতে পারবে না। বের হলে অবশ্যই তাকে জিজ্ঞাসাবাদের মুখোমুখি হতে হবে।

ঢাকা বিভাগীয় কমিশনার মো. মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, ‘ঢাকায় সেনাবাহিনী নেমেছে। তবে এখনও সমন্বয়ের কাজটি চলছে। মঙ্গলবার সারাদিন মিটিং হয়েছে। বুধবারও সকাল থেকেই মিটিং।’

তিনি বলেন, ‘মঙ্গলবার ঢাকা বিভাগীয় কমিশনারের নেতৃত্ব জেলা প্রশাসক, পুলিশ ও সেনাবাহিনীর উচ্চপদস্থ কর্মকর্তাদের বৈঠক হয়েছে। বৈঠকে করোনা প্রতিরোধে নানান দিক নিয়ে আলোচনা হয়েছে। ঢাকার দুই সিটি করপোরেশনে চারটি ক্যাম্প ও ১৭টি সাব ক্যাম্পের মাধ্যমে কার্যক্রম পরিচালনা করবে সশস্ত্রবাহিনী।’

বিভাগীয় কমিশনার বলেন, ‘জরুরি প্রয়োজন ছাড়া কেউ যাতে বাড়ির বাইরে যেতে না পারে এবং একসঙ্গে যাতে দুজন চলাফেরা না করে, এই নির্দেশনা মানাতে বুধবার সকাল থেকে মাঠে রয়েছে সশস্ত্রবাহিনী। শহরগুলোতে সার্বিক নির্দেশনা বাস্তবায়ন করবে সেনাবাহিনী। যেসব এলাকা নদী বেষ্টিত ওইসব এলাকায় নৌবাহিনী এবং জরুরি ওষুধ সরবরাহ ও চিকিৎসা নিশ্চিত করবে বিমানবাহিনী।’

Please follow and like us:
error

About jahir

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

করো’না ভাই’রাস নিয়ে বিয়েতে নারী, সংস্প’র্শে আক্রান্ত ৯

প্রা’ণঘাতী করো’না ভাই’রাস নিজের শরীরে নিয়েই বিয়ের একটি অনুষ্ঠানে যোগ দিয়েছিলেন পা’কিস্তানের ...