Home / Uncategorized / বঙ্গবন্ধুর খুনির বিচার নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রীর মন্তব্য, বহিষ্কারের দাবি

বঙ্গবন্ধুর খুনির বিচার নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রীর মন্তব্য, বহিষ্কারের দাবি

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে হত্যার দায়ে ফাঁসির দণ্ডপ্রাপ্ত আসামি ক্যাপ্টেন (বরখাস্ত) আবদুল মাজেদকে গ্রেফতার করা হয়েছে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক পোস্টে বঙ্গবন্ধুর খুনির বিচার নিয়ে মন্তব্য করায় ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের এক ছাত্রীকে বহিষ্কারের দাবি জানিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের নেতা, কর্মীরা।

জানা যায়, বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের সাবেক ছাত্র সাজ্জাদ হোসেন সাজু ফেসবুকে পোস্ট করেন ‘কেউ পারেনি যা, পেরেছে করোনাঃ করোনার ভয়ে ভারত থেকে পালিয়ে এসে ঢাকায় গ্রেফতার বঙ্গবন্ধুর আত্মস্বীকৃত খুনি মাজেদ।’

এখানে বাংলা বিভাগের ২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষের মাস্টার্সের ছাত্রী কমল ছন্দা মন্তব্য করেন, ‘ভাইয়া শেখ মুজিব যদি খুন না হতো তাহলে কি সে এখনো পর্যন্ত বেঁচে থাকত? মুজিবর রহমান অনেক বয়স পরই মারা গেছেন। কিন্তু আমরা আদিখ্যেতা জাতি একজনের খুনের বিচার করতে করতে ভুলেই যায় প্রতিদিন কতশত মানুষ আমাদের আশেপাশে খুন হচ্ছে, গুম হচ্ছে। আমরা পুরাতন কাসন্দী নিয়ে খুব বেশি ঘাটাঘাটি করতে পছন্দ করি।’

এ মন্তব্যে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের বর্তমান ও সাবেক ছাত্রলীগ নেতা কর্মীরা নিন্দা জানিয়ে ফেসবুকে ওই ছাত্রীর বহিষ্কারের দাবি জানিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের কাছে।

শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি রবিউল ইসলাম পলাশ বলেন, ফেসবুকে কমল ছন্দা যে মন্তব্যটি করেছেন এতে আমরা খুবই লজ্জিত এবং বিব্রত। তিনি তার মন্তব্যের মাধ্যমে জাতির পিতাকে অস্বীকার করেছেন। আমি বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের কাছে তার ছাত্রত্ব বাতিল এবং প্রধানমন্ত্রীর কাছে তার নাগরিকত্ব বাতিলের দাবি জানাই।

শাখা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি শাহিনুর রহমান শাহিন ফেসবুকে বলেন, কমল ছন্দ আমি জানতাম তুমি মডার্ন অসামাজিক।কিন্তু তুমি জঘন্য,অকৃতজ্ঞ,বেইমান,অক্ষরজ্ঞানহীন ও সমাজ বিবর্জিত মনুষ‍্য। আমি বাংলা ডিপার্টমেন্টের ছাত্র হওয়াই লজ্জাবোধ করছি,তাই যত দ্রুত সম্ভব আমাদের বিভাগের সম্মানিত চেয়ারম্যান স‍্যার উপযুক্ত পদক্ষেপ গ্রহণ করে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের এবং আমাদের বাংলা বিভাগের লজ্জা নিবারন করুন। সর্বশেষ আমার প্রাণের ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রলীগ কর্মীদের দেশের এই দূর্যোগের সমাপ্তিতে নিয়ম অনুযায়ী প্রশাসের কাছে বিচার দাবি করার আহ্বান জানাচ্ছি। (বি:দ্র: এই অপরাধীর বিশ্ববিদ্যালয় পড়ার যোগ‍্যতা আছে বলে আমার মনে হয় না।)

 

শাখা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক জুয়েল রানা হালিম বলেন, ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে নিয়ে এরকম বাজে কটুক্তিকারি ব্যক্তি ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী হওয়ার যোগ্যতা রাখেনা। এর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হোক।

এ বিষয়ে প্রক্টর অধ্যাপক ড. পরেশ চন্দ্র বর্ম্মন বলেন, ওই মন্তব্য কমল ছন্দা নিজেই লিখেছে, তার ফেসবুক আইডি হ্যাকড হয়নি যা সে নিজেই স্বীকার করেছে। প্রাথমিকভাবে তার কাছে এর ব্যাখ্যা চাওয়া হবে পরে যথাযথ ব্যবস্থা নেয়া হবে। করোনার এই সংকটকালে এই ইস্যু সামনে আনা ঠিক হয়নি মনে করে তিনি এ মন্তব্য করেন বলে প্রক্টর সূত্রে জানা যায়।

প্রসঙ্গত, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হত্যা মামলায় মৃত্যুদণ্ডাদেশপ্রাপ্ত পলাতক আসামি ক্যাপ্টেন (বরখাস্ত) আবদুল মাজেদ গত ২৫ বছর ধরে ভারতে পালিয়ে ছিলেন। করোনাভাইরাস আতঙ্কে সেখান থেকে গত ২৬ মার্চ ময়মনসিংহের সীমান্ত এলাকা দিয়ে অবৈধভাবে বাংলাদেশে প্রবেশ করেন। দেশে ফেরার গোপন তথ্যের ভিত্তিতে সোমবার (৬ এপ্রিল) মধ্যরাতে রাজধানীর মিরপুর এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করে কাউন্টার টেরোরিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম (সিটিটিসি)। এরপর তাকে ঢাকার কেন্দ্রীয় কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন আদালত।

About jahir

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

আপনাকে কতোটা ভালোবাসে স্ত্রী খেয়াল করুন লক্ষ্মণগুলো

সুখী দাম্পত্য কে না চায়, আপনিও নিশ্চয়ই চান যে আপনার স্ত্রীর সঙ্গে ...