শনিবার, ১৬ অক্টোবর ২০২১, ০৫:০১ অপরাহ্ন

শিরোনাম :
দূর্গা পুজা মন্ডপে হামলা ভাংচুর লুঠপাট ধর্ষন খুন জখমের প্রতিবাদে জাতীয হিন্দু মহাজোট জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে এক মানব বন্ধন ও বিক্ষোভ পূর্ণাঙ্গ কেন্দ্রীয় কমিটি এবং গঠনতন্ত্র থাকলেই রাজনৈতিক দলের নিবন্ধন দিতে হবে: ইউএনএ চট্টগ্রামে বাসা থেকে মা ও দুই সন্তানের মরদেহ উদ্ধার বোয়ালখালীতে বিনয়বাঁশী শিল্পীগোষ্ঠী’র নেতৃত্বে পশ্চিম গোমদন্ডী মানব কল্যাণ সংঘ এর পূজা মন্ডপ পরিদর্শন সুন্দরগঞ্জে লিমার হত্যাকারীদের ফাঁসির দাবিতে মানববন্ধন মিরসরাইয়ে ট্রিপল মার্ডার সম্পত্তি না দেওয়ায় মা-বাবা ও ভাইকে জবাই করে হত্যা বড় ছেলের দায় স্বীকার, হত্যাকান্ডে ব্যবহৃত চুরি উদ্ধার ইসলামপুরে নবাগত উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে বরণ র্ধম নিয়ে রাজনীতি নয় এ্যাড. আফজাল হোসেন কোরআন অবমাননার নাটক করে সারাদেশে পূজামন্ডপে সন্ত্রাসী হামলা—ভাংচুরের প্রতিবাদে ও সন্ত্রাসীদের গ্রেফতারের দাবিতে সমাবেশ ও বিক্ষোভ মিছিল তানোর উপজেলা চেয়ারম্যানের মন্দির পরিদর্শন দিনাজপুর বিরামপুরে স্বামীর বটির আঘাতে স্ত্রী গুরুতর জখম  তানোরে মন্দির কমিটির প্রতিনিধিদের সঙ্গে এমপির মতবিনিময় ডাকাতির প্রস্তুতি সময় ৪ যুবককে গ্রেপ্তার করে র‌্যাব-১২ খানসামায় সেনাবাহিনীর মানবিক সহায়তা পেল ৪ শতাধিক কর্মহীন ও দিনমজুর পরিবার লক্ষ্মীপুরে ইউপি আ’লীগের সভাপতি পদ থেকে নান্নুকে বাতিলের দাবীতে নেতাকর্মীদের সংবাদ সম্মেলন

অভিনেতা ড. ইনামুল হক আর নেই

প্রতিবেদক: সোমবার (১১ অক্টোবর) রাজধানীর একটি হাসপাতালে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেছেন ( ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)।

অভিনয়শিল্পী সংঘের সাধারণ সম্পাদক আহসান হাবিব নাসিম জানান, বাসায়ই ছিলেন, হঠাৎ পালস পাওয়া যাচ্ছিল না। দ্রুত শান্তিনগর ইসলামী ব‌্যাংক হাসাপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। এ সময় চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন। আনুমানিক বেলা ৩টার দিকে মারা গেছেন তিনি।

ড. ইনামুল হকের মৃতদেহ কোয়ান্টামে নেওয়া হয়েছে। সেখানে গোসল শেষ করে নিয়ে যাওয়া হবে বেইলী রোডে। এরপর শিল্পকলা একাডেমিতে নেওয়া হবে। তবে কোথায় কখন দাফন করা হবে তা এখনো চূড়ান্ত হয়নি বলে জানিয়েছেন নাসিম।

বরেণ্য নাট্যজন লাকী ইনামের সঙ্গে ঘর বেঁধেছিলেন ড. ইনামুল হক। এ সংসারে হৃদি হক ও প্রৈতি হক নামে দুই কন্যা সন্তান রয়েছে।

নাট্যকার হিসেবে ড. ইনামুল হক’র পথচলা শুরু হয়েছিল ১৯৬৮ সালে। তার প্রথম লেখা নাটকের নাম ‘অনেকদিনের একদিন’। আবদুল্লাহ আল মামুন নাটকটি প্রযোজনা করেছিলেন টেলিভিশনের জন্য। টেলিভিশনের জন্য ৬০টি নাটক লিখেছিলেন তিনি।

তার লেখা আলোচিত টিভি নাটকের মধ্যে রয়েছে ‘সেইসব দিনগুলি’ (মুক্তিযুদ্ধের নাটক), ‘নির্জন সৈকতে’ ও ‘কে বা আপন কে বা পর’।

মঞ্চের জন্য তার লেখা প্রথম নাটকের নাম ‘বিবাহ উৎসব’। এটি লিখেছিলেন উদীচীর জন্যে। তার নিজ দল নাগরিক নাট্যাঙ্গনের জন্য প্রথম লেখা নাটকের নাম ‘গৃহবাসী’। ১৯৮৩ সালে লেখা হয় নাটকটি। ঢাকার মঞ্চে বেশ আলোচিত নাটক এটি।

ড. ইনামুল হক অভিনয় জীবন শুরু করেন ১৯৬৮ সালে। তার প্রথম অভিনীত টেলিভিশন নাটক ছিল ‘মুখরা রমণী বশীকরণ’। এটি প্রযোজনা করেছিলেন মুস্তাফা মনোয়ার।

Please Share This Post in Your Social Media

https://twitter.com/WDeshersangbad

https://www.facebook.com/Dsangbad

https://www.facebook.com/Dsangbad

All rights reserved © deshersangbad.com 2011-2021
Design And Developed By Freelancer Zone