শনিবার, ১৭ এপ্রিল ২০২১, ০৪:৫৭ অপরাহ্ন

শিরোনাম :
গৃহহীনদের ঘর দেয়ার কথা বলে অর্থ নেয়ার অভিযোগে সাঁথিয়ায় আ’লীগ নেতাকে শোক’জ করোনায় ১৫ দিনে ১২ ব্যাংকারের মৃত্যু পৃথিবীতে কোনো জালিম চিরস্থায়ী হয়নি: বাবুনগরী যারা আ.লীগ সমর্থন করে তারা প্রকৃত মুসলমান নয়: নূর চট্টগ্রামে বেপরোয়া হুইপপুত্র যুবলীগ নেতাকে কুপিয়ে হত্যা অক্সিজেনের তীব্র সংকট দেখা দিয়েছে ভারতে ৪ ঘণ্টা পর পাকিস্তানে খুলে দেয়া হলো সোশ্যাল মিডিয়া করোনায় ২৪ ঘণ্টায় ১০১ জনের মৃত্যু ভাড়াটিয়াকে তাড়িয়ে দিলেন বাড়িওয়ালা, পুলিশের হস্তক্ষেপে রক্ষা জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে জনপ্রিয় নায়িকা মিষ্টি মেয়ে কবরী স্বামী পরিত্যক্তা নারীকে গণধর্ষণ, আটক ৩ দুই দিনের রিমান্ডে ‘শিশুবক্তা’ রফিকুল লকডাউনেও মসজিদে মসজিদে মুসল্লিদের ঢল বেনাপোলে ৮৮ কেজি গাঁজাসহ মাদক কারবারী আটক

উত্তর ও দক্ষিণ দুই সিটির নির্বাচন ৩০ জানুয়ারি

রাজধানীর উত্তর ও দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে ৩০ জানুয়ারি।  দুই সিটির সবগুলো কেন্দ্রে ভোট নেয়া হবে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) ব্যবহার করে। আর দুই সিটির বর্তমান মেয়ররা এই নির্বাচনে অংশ নিতে চাইলে তাদের নিজ নিজ পদ থেকে পদত্যাগ করতে হবে।

রোববার নির্বাচন ভবনের মিডিয়া সেন্টারে এক সংবাদ সম্মেলনে এ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কেএম নূরুল হুদা।

সিইসি জানান, নির্বাচনে মনোনয়ন দাখিলের শেষ তারিখ আগামী ৩১ ডিসেম্বর। নির্বাচনে মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই চলবে ২ জানুয়ারি পর্যন্ত। প্রার্থীরা ৯ জানুয়ারি পর্যন্ত মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করতে পারবেন। ভোটগ্রহণ হবে ৩০ জানুয়ারি।

সিইসি’র ব্রিফিংয়ে চার নির্বাচন কমিশনার মাহবুব তালুকদার, রফিকুল ইসলাম, কবিতা খানম ও বিগ্রেডিয়ার জেনারেল অবসরপ্রাপ্ত শাহাদত হোসেন চৌধুরী এবং ইসি সচিব মো. আলমগীর উপস্থিত ছিলেন।

ঢাকা উত্তর সিটিতে ভোটার সংখ্যা ৩০ লাখ ৩৫ হাজার ৬২১ জন। সাধারণ ওয়ার্ড ৫৪টি এবং সংরক্ষিত ওয়ার্ড ১৮টি। সম্ভাব্য ভোটকেন্দ্রের সংখ্যা এক হাজার ৩৪৯টি এবং ভোটকক্ষ সাত হাজার ৫১৬টি।

ঢাকা দক্ষিণ সিটিতে ভোটার সংখ্যা ২৩ লাখ ৬৭ হাজার ৪৮৮ জন। সাধারণ ওয়ার্ড ৭৫টি এবং সংরক্ষিত ওয়ার্ড ২৫টি। সম্ভাব্য ভোটকেন্দ্র এক হাজার ১২৪ এবং ভোটকক্ষ পাঁচ হাজার ৯৯৮টি।

এর আগে, সর্বশেষ ২০১৫ সালে চট্টগ্রাম ও ঢাকার দুই সিটিতে একই দিনে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়েছিল। কিন্তু ওই সময় চট্টগ্রাম সিটি নির্বাচনের মেয়াদ পূর্ণ না হওয়ার কারণে চট্টগ্রাম সিটির নির্বাচিত মেয়র আ জ ম নাছির নির্বাচনের পরপরই দায়িত্ব নিতে পারেননি। এ কারণে ওই সিটির প্রথম বৈঠকও দেরিতে হয়েছিল। ফলে আগেরবার তিন সিটিতে একসঙ্গে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হলেও এবারে ঢাকার দুই সিটিতে চট্টগ্রামের আগে নির্বাচন আয়োজনের বাধ্যবাধকতা রয়েছে।

স্থানীয় সরকার বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের প্রথম বৈঠক হয়েছিল ২০১৫ সালের ১৪ মে, ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের বৈঠক ১৭ মে অনুষ্ঠিত হয়েছিল। এর প্রায় তিন মাস পরে ৬ আগস্ট অনুষ্ঠিত হয় চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশেনের প্রথম বৈঠক। সেই হিসাবে এ বছর ১৭ নভেম্বর ঢাকা উত্তর ও ২০ নভেম্বর ঢাকা দক্ষিণ এবং আগামী বছর ৯ ফেব্রুয়ারি চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের উপযোগী হবে।

সিটি কর্পোরেশন আইন অনুযায়ী মেয়াদ শেষ হওয়ার পূর্ববর্তী ১৮০ দিনের মধ্যে নির্বাচন অনুষ্ঠানের বিধান রয়েছে। আর আইন অনুযায়ী কর্পোরেশনের প্রথম বৈঠক থেকে এর মেয়াদ গণনা শুরু হয়।

Please Share This Post in Your Social Media

দেশের সংবাদ নিউজ পোটালের সেকেনটের ভিজিটর

38449222
Users Today : 846
Users Yesterday : 1193
Views Today : 5578
Who's Online : 24
© All rights reserved © 2011 deshersangbad.com/
Design And Developed By Freelancer Zone