সোমবার, ১০ মে ২০২১, ১১:৩৫ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম :
করোনা মুক্তির দোয়া করতে মুসলমানদের মসজিদে যাওয়ার অনুরোধ করলো ভারতের পুলিশ লক্ষ্মীপুরে ভুমি কর্মকর্তাকে মারধর মামলায় : আ’লীগ নেতা গ্রেপ্তার মিরসরাই সমিতি কুয়েতের উদ্যোগে ইফতার ও দোয়া মাহফিল ঈদের আগে স্বর্ণের দামে সুখবর কাঁকনহাটে গম জব্দ অভিযোগের তীর উঠেছে মেয়রের দিকে নড়াইলে গৃহবধূকে পিটিয়ে হত্যা নকলায় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক ভবনে আগুন। ২ লাখ খামারি ২৯২ কোটি টাকা প্রণোদনা পাবে পাকেরহাটে নাসিম সমাজকল্যাণ ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে ঈদ উপহার বিতরণ তানোরে প্রধানমন্ত্রীর অনুদান নিয়ে মেয়রের প্রচারণা ? শ্যামনগর জোবেদা সোহরাব মডেল মাধ্যমিক বিদ্যালয় অভ্যন্তরে ঢালাই রাস্তার উদ্বোধন স্বাস্থ্যবিধি মেনে দেশব্যাপী রাতে গণপরিবহন চালুর দাবি করোনায় ঈদবাজার ও ঈদ উদযাপন  সাইফুল ইসলাম চৌধুরী  ওয়াটার ট্রিটমেন্ট প্ল্যান্টের সুফল পাচ্ছেনা বরিশালবাসী মা দিবসের শুভেচ্ছা

কক্সবাজারে নিরপরাধ স্কুল ছাত্র শাহ আমিনের আড়াই মাস কারাবাস: দিতে পারেনি পিএসসি পরীক্ষা, জীবনে নেমেছে সর্বনাশ!

বেলাল আজাদ, কক্সবাজার:
কক্সবাজারের উখিয়া উপজেলার এক সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ৫ম শ্রেণী পড়ুয়া ও সদ্য শেষ হওয়া পিএসসি পরীক্ষার্থী নিরীহ-নিরপরাধ মেধাবী ছাত্রকে সম্পূর্ণ সন্দেহের বশে শারীরিক ভাবে নির্মম নির্যাতন ও মারধর করে প্রতিবেশীর ঘরে চুরির মামলায় জড়িয়ে কারাগারে পাঠানোর ফলে মেধাবী ছাত্রটির ভবিষ্যৎ জীবনে নেমে এসেছে ঘোর অন্ধঁকার। দীর্ঘ আড়াই মাসের কারাবন্দিত্বে তার পিএসসি পরীক্ষাও দেওয়া হয়নি, অতি দরিদ্র পরিবারের লোকজনও ছেলেটির মামলা তদবীরে অনেকটা নিঃস্ব ও হয়রান হয়ে পড়েছে। গত ২১ সেপ্টেম্বর থেকে শিশু অপরাধীদের জন্য নির্ধারিত কারাগার ঢাকার গাজীপূরস্থ টঙ্গী শিশু উন্নয়ন কেন্দ্রে আটক থাকা উখিয়া উপজেলার রাজাপালং ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের রেজুরকুল সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৫ম শ্রেণীর নিয়মিত মেধাবী ছাত্র ও সদ্য শেষ হওয়া প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী (পিএসসি) পরীক্ষার্থী এবং জালিয়াপালং ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের পাইন্যাশিয়া গ্রামের দিনমজুর শামশুল আলমের শিশু পূত্র শাহ আমিন (১৪) সদ্য অনুষ্টিত পিএসসি পরীক্ষায়ও অংশ নিতে পারেনি।
অনুসন্ধানে জানা যায়, জালিয়াপালং ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নূরুল আমিন চৌধুরীর ভাই পাইন্যাশিয়া গ্রামের মৃত আমিনুল হক চৌধুরীর বসত ঘরে অজ্ঞাত চোরের দল গত ২৬ আগষ্ট রাত ৩ টায় প্রবেশ করে গৃহ থেকে নগদ টাকা, স্বর্ণালংকার ও দামী কয়েকটি মোবাইল সেট সহ মূল্যবান আসবাবপত্র মিলিয়ে প্রায় আড়াই লাখ টাকা পরিমাণের মালামাল চুরি করে নিয়ে যায়। এই চুরির ঘটনায় কারা জড়িত সেটা নিশ্চিত হতে না পারায় দীর্ঘদিন পরিবারটির কোন মামলাও করেননি। চুরির ঘটনার দীর্ঘ ২৪ দিন পরে পরিবারটির লোকজন ঘটনায় জড়িত সন্দেহে স্কুল ছাত্র শাহ আমিনকে ধরে অনেক জিজ্ঞাসাবাদেও চুরির ঘটনায় জড়িত কিনা স্বীকার করাতে ব্যর্থ হয়ে উখিয়া থানায় সোপর্দ করে। সে দিন (২০ সেপ্টেম্বর, রাতে) থানায় চুরির ঘটনায় জড়িত কিনা সেটা স্বীকারোক্তি আদায়ে নিরীহ স্কুল ছাত্র শাহ আমিনকে নির্মম ভাবে শারীরিক নির্যাতন সহ ব্যপক মারধর করেও কোন তথ্য বের করতে ব্যর্থ হওয়ার পরে পরিবারটির গৃহকর্ত্রী মৃত আমিনুল হক চৌধুরীর স্ত্রী জাহানারা বেগম বাদী হয়ে উখিয়া থানায় স্কুল ছাত্র শাহ আমিন সহ ৩ জনের নামে এজাহার দিলে সেটা নিয়মিত মামলা (জি.আর.নং-৪৬৮/২০১৯, উখিয়া থানার মামলা নং-৩৭, তাং-২০/০৯/২০১৯ইং, ধারা-৪৫৭/৩৮০/৩৪ দন্ডবিধি) হিসেবে রেকর্ড পূর্বক স্কুল ছাত্র শাহ আমিন কে ২১ বছর বয়স উল্লেখ করে আদালতে সোপর্দ করা হয়। মামলাটির এজাহারের ও আসামীর চালান ফর্দে ১নং ক্রমিকের আসামী শাহ আমিনের বয়স ২১ উল্লেখ থাকায় আদালতে সোপর্দ করা আদালতও স্বাভাবিক বয়সের আসামী হিসেবেই তাকে কক্সবাজার জেলা কারাগারে পাঠায়। কিন্তু কারা কতৃপক্ষ শিশু ছাত্র শাহ আমিনের শারীরিক গড়ন পর্যালোচনায় অপ্রাপ্ত বয়সের শিশু বিবেচিত করে শিশু কারাবন্দিদের জন্য নির্ধারিত টঙ্গী শিশু উন্নয়ন কেন্দ্রে পাঠিয়ে দেন।
মামলাটির এজাহারে ১৪ বছরের শিশু শাহ আমিন কে ২১ বছর বয়স উল্লেখ করা হলেও জালিয়াপালং ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নুরুল আমিন চৌধুরী প্রদত্ত জন্ম সনদ ও অনলাইন জন্ম তথ্য যাছাই এবং রেজুরকুল সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক অমৃত কুমার বড়ুয়া প্রদত্ত্ব ৫ শ্রেণী পড়ুয়া নিয়মিত মেধাবী ছাত্র ও ১৭ নভেম্বর পিএসসি পরীক্ষার্থী প্রত্যয়ন পত্র পর্যালোচনায় দেখা যায়, শাহ আমিনের জন্ম তারিখ ৮ সেপ্টেম্বর ২০০৫ মতে, তার বর্তমান বয়স ১৪ বছর ২ মাস। রেজুরকুল সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক অমৃত কুমার বড়ুয়া জানান, ‘শাহ আমিন স্কুলের নিয়মিত ও মেধাবী ছাত্র। সে যে চুরি করেছে তা বিশ্বাস করি না। প্রতিদিন স্কুলে সদা হাস্যজ্জ্বল, খেলাধুলা ও পড়াশোনায় ব্যস্ত শিশু ছাত্রটির মূখচ্ছবি প্রায় ভাবনায় এলে মনটা হাহাকার করে ওঠে। তার শিশু জীবনের গুরুত্বপূর্ণ পিএসসি পরীক্ষায়ও সে অংশ নিতে পারেনি।’
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এলাকার অনেকেই জানালেন, শিশু ছাত্র শাহ আমিন চুরির ঘটনায় জড়িত  ছিল সেটা বিশ্বাস করা যায় না। এমন একটা কম বয়সের শিশুর পক্ষে রাত সাড়ে ৩ টায় অন্যের ঘরে চুরির মত অসাধ্য কাজ করা অসাধ্য ও অবিশ্বাস্য। প্রাথমিক পর্যায়ে পড়াশোনারত, অবুঝ ও সহজ-সরল একটা শিশু ছাত্রকে কোন প্রত্যক্ষদর্শী স্বাক্ষী বা নির্ভলশীল তথ্য-প্রমাণ ছাড়াই শুধু সন্দেহের বশে নির্মম নির্যাতন সহ মারধর করে চুরি মামলায় কারাগারে পাঠানো খুবই দুঃখ জনক।
এদিকে বসত ঘরে চুরির ঘটনার দীর্ঘ ৩ মাসেরও বেশী সময় পার হয়ে গেলেও চুরি হওয়া পরিবারের কোন সদস্য  বা প্রতিবেশী কেউ এবং মামলাটির তদন্তকারী কর্মকর্তা চুরির ঘটনা কারা জড়িত তা নিশ্চিত হতে পারেননি। নিরীহ স্কুল ছাত্র শাহ আমিন জড়িত থাকার মত কোন স্বাক্ষ্য-প্রমাণও মিলেনি। উদ্ধার হয়নি চোরাই কোন আলামত। তদন্তকারী কর্মকর্তাও ঘটনার দীর্ঘ ৩ মাস ও স্কুল ছাত্র শাত আমিন কে গ্রেফতারের দীর্ঘ আড়াই গত হয়ে গেলেও তিনি জানেন না শাহ আমিন যে স্কুল ছাত্র ও ১৪ বছরের শিশু!  তদন্তকারী কর্মকতা উখিয়া থানাধীন ইনানী পুলিশ ইনচার্জ এস.আই. (নিরস্ত্র) শ্রী সিদ্ধার্থ সাহা জানালেন, অন্যান্য যে কোন ফৌজদারী মামলা গুলো তদন্তের চেয়ে সিধেঁল চুরির মামলা তদন্ত করা খুবই জটিল ও সময় স্বাপেক্ষ। মামলাটি তদন্তাধীন থাকায় কোন মতামত দেয়া যাবে না। তবে শাহ আমিন যে পিএসসি পরীক্ষার্থী ৫ম শ্রেণীর স্কুল ছাত্র অথবা শিশু তা তার জানা নেই !

Please Share This Post in Your Social Media


বঙ্গবন্ধু কাতরকণ্ঠে বলেন, মারাত্মক বিপর্যয়

বঙ্গবন্ধু কাতরকণ্ঠে বলেন, মারাত্মক বিপর্যয়

https://twitter.com/WDeshersangbad

© All rights reserved © 2011 deshersangbad.com/
Design And Developed By Freelancer Zone