বুধবার, ১৪ এপ্রিল ২০২১, ০৮:৪৯ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম :
ডা. মামুন এর প্রতারণার শেষ কোাথায়? : লক্ষ্মীপুর পরিবার পরিকল্পনা বিভাগের চিকিৎসা সেবা ব্যাহত ঋণের জন্য ব্যাংকে উপেক্ষিত ছোট উদ্যোক্তারা করোনার সংক্রমণ ১৪ এপ্রিল থেকে যেভাবে পাওয়া যাবে ব্যাংকিং সেবা বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামে ডাবের খোসায় গর্ত ভরাট‍! নিয়মিত পর্নো ভিডিও দেখতেন শিশুবক্তা রফিকুল আইপিএল নিয়ে জুয়ার আসর থেকে আটক ১৪ কারাগারে কেমন কাটছে পাপিয়ার দিনকাল এক ঘুমে কেটে গেলো ১৩ দিন! কেউ ‘কাজের মাসি’, কেউবা ‘সেক্সি ননদ-বৌদি’ ৬৪২ শিক্ষক-কর্মচারীর ২৬ কোটি টাকা ছাড় করোনায় আরো ৬৯ জনের মৃত্যু, আক্রন্ত ৬০২৮ বাংলাদেশে করোনা টানা তিনদিন রেকর্ডের পর কমল মৃত্যু, শনাক্তও কম করোনা টিকার দ্বিতীয় ডোজ নিলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ও আইজিপি শো-রুম থেকে প্যান্ট চুরি করে ধরা খেলেন ছাত্রলীগ নেতা করোনা নিঃশব্দ ও অদৃশ্য ঘাতক,সতর্কতাই এ থেকে মুক্তির একমাত্র পথ ——-ওসি দীপক চন্দ্র সাহা

গর্ভপাত আর অপরাধ নয় অস্ট্রেলিয়ায়

গোটা অস্ট্রেলিয়ায় গর্ভপাত আর অপরাধ নয়। শেষ রাজ্য হিসেবে নিউ সাউথ ওয়েলসেও গর্ভপাতকে নিরপরাধ হিসেবে স্বীকৃতি দিতে আইনের সংস্কারের পক্ষে ভোট দিয়ে তাদের সমর্থন জানিয়েছে এমপিরা। বৃহস্পতিবারের এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে বিবিসি।

বৃহস্পতিবার এ সংক্রান্ত একটি বিল পাস করার মাধ্যমে দেশটির ১১৯ বছরের পুরোনো আইনটির অবসান ঘটলো। বিরোধীরা এই আইনকে আদিম বলে সমালোচনা করে আসছিল দীর্ঘদিন ধরে। প্রাদেশিক পরিষদে গত এক সপ্তাহের বিতর্ক শেষে ক্ষমতাসীন রক্ষণশীল সরকারের দ্বিধাবিভক্তির মধ্য দিয়ে বিলটি পাস হয়।

এতদিন ধরে গর্ভপাত আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ ছিল রাজ্যটিতে। তবে বিশেষ ক্ষেত্রে তার অনুমোদন ছিল। যদি কোনো চিকিৎসক দেখেন গর্ভপাত না করালে একজন নারী মারাত্মক স্বাস্থ্য ঝুঁকিতে পড়বেন তখন সেই নারী গর্ভপাতের অনুমতি পেতেন।

প্রাদেশিক পরিষদে ২৬ জন আইনপ্রণেতা বিলটির পক্ষে এবং ১৪ জন আইনপ্রণেতা বিলটির বিপক্ষে ভোট দেন। অবশ্য বিলটি সংসদে উত্থাপন করার পর এক সপ্তাহ বিতর্কের মধ্য দিয়ে প্রস্তাবিত বিলটিতে শতাধিক সংশোধন আনা হয়। ইতোমধ্যে উচ্চকক্ষ বিলটির অনুমোদন দিয়েছে।

সংসদে পাস হওয়া আইন অনুযায়ী, গর্ভধারণের ২২ সপ্তাহ পর্যন্ত একজন নারী তার গর্ভপাত করানোর অনুমতি পাবেন। আর যদি এর চেয়ে বেশি সময় পর কারও গর্ভপাতের প্রয়োজন হয় তাহলে অন্তত দুজন চিকিৎসককে তাতে সম্মতি দিতে হবে।

তবে আইনটি সংস্কারের বিপক্ষে শক্ত অবস্থান নেন কিছু এমপি এবং অধিকারকর্মী। তারা তাদের ব্যক্তিগত বিশ্বাসের কারণে এবং দেরিতে গর্ভপাতের বিষয়ে আপত্তি তোলেন। তবে শেষ সময়ে এসে কিছু রক্ষণশীল এমপি আইন সংশোধনের পক্ষে অবস্থান নেন।

Please Share This Post in Your Social Media

দেশের সংবাদ নিউজ পোটালের সেকেনটের ভিজিটর

38444915
Users Today : 529
Users Yesterday : 1341
Views Today : 5472
Who's Online : 28
© All rights reserved © 2011 deshersangbad.com/
Design And Developed By Freelancer Zone