বুধবার, ১২ মে ২০২১, ০২:০১ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম :
ঈদের ছুটি নিয়ে বিভ্রান্তি লকডাউনের ক্ষতি পুষিয়ে নিতে চান দোকানিরা যাত্রীর চাপ এবার আকাশপথে উদ্বেগ-উৎকণ্ঠা নিয়ে ঢাকা ছাড়ছেন কর্মহীনরা টিকা আনতে চীনে গেল বিমানবাহিনীর উড়োজাহাজ করোনায় দেশে মৃত্যু ছাড়ল ১২ হাজার বুধ নয়, এবার বৃহস্পতিবার থেকে ঈদের ছুটি পত্নীতলায় সরকারিভাবে চাউল ক্রয়ের উদ্বোধন বড়াইগ্রাম স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে সেন্ট্রাল অক্সিজেন সরবরাহের উদ্বোধন  শার্শায় ক্ষতিগ্রস্থদের ২৭টি পরিবারের মাঝে ঢেউটিন ও গৃহ নির্মাণ অর্থ বিতরণ বেনাপোল সীমান্ত থেকে ৫ টি পিস্তল ৭ রাউন্ড গুলি ও ১ টি ম্যাগজিন উদ্ধার  বাংলাদেশে ফিরতে না পেরে কলকাতায় ক্যান্সার আক্রান্ত শিশুর মৃত্যু রাজধানীতে ফুটপাতে পড়ে ছিলো ভিক্ষুকের লাশ ঢাকার পথে চীনের ৫ লাখ করোনার টিকা দিনে ফেরি চলাচলের অনুমতি দিল বিআইডব্লিউটিসি

মেহেদি-সাইফের আঘাতে বিপর্যয়ে শ্রীলংকা

ক্যান্ডি টেস্টের প্রথম ইনিংসে রানের পাহাড় গড়ে ইনিংস ঘোষণা করেছে শ্রীলংকা। জবাবে অল্প রানেই গুটিয়ে গেছে বাংলাদেশ। প্রথম ইনিংসে শ্রীলংকার করা ৭ উইকেটে ৪৯৩ রানের জবাবে ২৫১ রানে গুটিয়ে যায় বাংলাদেশ। ফলো অনের লজ্জা দেয়ার সুযোগ থাকলেও তা করেনি শ্রীলংকা। বল হাতে টাইগারদের একাই ধ্বসিয়ে দিয়েছেন প্রবীণ জয়বিক্রমা।

২৪২ রানে এগিয়ে থেকে ব্যাট করতে নেমে দলীয় ১৪ রানে আউট হন লাহিরু থিরিমান্নে (২)। মেহেদী মিরাজের বলে নাজমুল হোসেন শান্তর ক্যাচে পরিণত হন তিনি।

এরপর তাইজুল ইসলামের প্রথম বলেই স্টেপ ডাউন করে খেলতে গিয়ে স্ট্যাম্পিংয়ের শিকার হন ওশাডা ফার্নান্দো। তিনি করেন ১ রান। দিনের বাকিটা সময় আর কোনো উইকেট হারায়নি শ্রীলংকা। মাত্র ১৭ রানে স্বাগতিকদের দুই উইকেট শিকার করে কিছুটা স্বস্তি নিয়ে তৃতীয় দিন শেষ করেছে টাইগাররা।

১৭ রান নিয়ে চতুর্থ দিনে ব্যাটিংয়ে নেমেছে স্বাগতিকরা। ৩৯ রানের মাথায় তাইজুলের শিকার হন অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউস। ১২ রানে বিদায় করেন ম্যাথিউসকে। এরপর অধিনায়ক দিমুথ করুণারত্নে ফেরালেন সাইফ হাসান। ৬৬ রান করেন প্রথম ইনিংসে ১৪০ রান করা করুণারত্নে।

এরপর মিরাজের আঘাত। ৪১ রান করা ধনঞ্জয়া ডি সিলভা দেন তিনি। এই রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত শ্রীলংকা সংগ্রহ ৫ উইকেটে ১২৫ রান।

এর আগে বাংলাদেশের হয়ে ইনিংস উদ্বোধনে নামেন তামিম ইকবাল ও সাইফ হাসান। প্রথম টেস্টের মত এ ম্যাচেও শুরু থেকেই আক্রমণাত্মক খেলতে থাকেন তামিম। অন্যপ্রান্তে ধরে খেলে রান করতে মনোযোগী ছিলেন সাইফ।

দলের রান যখন ৬১, তখন ক্যারিয়ারের ৩১তম ফিফটি পূরন করেন তামিম। অর্ধশতকের পথে ৫৭ বল খেলেন দেশসেরা ওপেনার। দুজনের ব্যাটে যখন ম্যাচে প্রাধান্য বিস্তারের পথে বাংলাদেশ, তখনই জয়বিক্রমার বলে স্লিপে ক্যাচ দেন সাইফ। এর আগে তিনি করেন ২৫ রান।

সাইফের জায়গায় নেমে দলের হতাশা বাড়ান নাজমুল হোসেন শান্ত। তিনি টিকতে পারেন মাত্র ৪ বল। রানের খাতা খোলার আগেই আউট হন প্রথম টেস্টের সেঞ্চুরিয়ান। লাঞ্চ বিরতির ঠিক আগের বলে ক্যাচ আউট হন শান্ত। যা এই ব্যাটসম্যানের ব্যাক টু ব্যাক ডাক। এরপর তামিম-মুমিনুল মিলে দলের স্কোর দেড়শোর কোঠা পার করেন।

শ্রীলংকার বিপক্ষে প্রথম টেস্টের প্রথম ইনিংসে ৯০ করে আউট হয়েছিলেন তামিম ইকবাল। দ্বিতীয় টেস্টে সেই হতাশা ঝেড়ে ফেলে সেঞ্চুরির দিকে এগোচ্ছিলেন তিনি। এবার সেঞ্চুরি থেকে মাত্র ৮ রান দূরে থাকতে নার্ভাস নাইন্টিজের শিকার হয়ে সাজঘরে ফেরেন দেশসেরা ওপেনার। জয়বিক্রমার বলে থিরিমান্নের হাতে ক্যাচ তুলে দেন তামিম।

এরপর দ্বিতীয় সেশনের বাকিটা সময় দারুণ খেলতে থাকেন মুশফিক-মুমিনুল জুটি। দুজনের ব্যাটে দলের রান দুশো ছাড়ায়। চা বিরতির আগে শেষ ওভারেই বিপত্তি বাধান মুশি। জয়বিক্রমার বলে লেগ বিফোরের ফাঁদে পড়ে আউট হন তিনি। এর আগে করেন ৪০ রান।

দিনের শেষ সেশনে বিপদ আরো বাড়ে। অনভিজ্ঞ দুই লংকান স্পিনার জয়বিক্রমা ও রমেশ মেন্ডিসকে সামলাতে রীতিমতো ঘাম ঝড়েছে ব্যাটসম্যানদের। মেন্ডিসের বলে লেগ বিফোরের ফাঁদে পড়েন মুমিনুল হক। এর আগে তিনি করেন ৪৯ রান।

জয়বিক্রমার চতুর্থ শিকারে পরিণত হওয়া লিটন দাস ৮ রানের বেশি করতে পারেননি। মেহেদী হাসান মিরাজকে ১৬ রানে লেগ বিফোরের ফাঁদে ফেলে অভিষেকেই ফাইফারের কীর্তি গড়েন জয়বিক্রমা। পঞ্চম লংকান বোলার হিসেবে এমন রেকর্ড করলেন এই স্পিনার। তাসকিনকে নিজের ষষ্ঠ শিকার বানিয়ে অভিষেকে শ্রীলংকার সেরা বোলিং ফিগারের রেকর্ড গড়েন জয়বিক্রমা। লাকমলের বলে হিট উইকেটের শিকার হয়ে তাইজুল আউট হওয়ার মধ্য দিয়ে শেষ হয় বাংলাদেশের ইনিংস।

বাংলাদেশ একাদশ: তামিম ইকবাল, সাইফ হাসান, নাজমুল হোসেন শান্ত, মুমিনুল হক (অধিনায়ক), মুশফিকুর রহীম, লিটন দাস (উইকেটরক্ষক), মেহেদী হাসান মিরাজ, তাইজুল ইসলাম, তাসকিন আহমেদ, আবু জায়েধ চৌধুরী রাহী ও শরিফুল ইসলাম।

শ্রীলঙ্কা একাদশ: দিমুথ করুণারত্নে (অধিনায়ক), লাহিরু থিরামান্নে, ওশাদা ফার্নান্দো, অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউস, ধনঞ্জয়া ডি সিলভা, পাথুম নিসাঙ্কা, নিরোশান ডিকভেলা (উইকেটরক্ষক), রমেশ মেন্ডিস, প্রবীণ জয়বিক্রম, সুরাঙ্গা লাকমল ও বিশ্ব ফার্নান্দো।

Please Share This Post in Your Social Media


বঙ্গবন্ধু কাতরকণ্ঠে বলেন, মারাত্মক বিপর্যয়

বঙ্গবন্ধু কাতরকণ্ঠে বলেন, মারাত্মক বিপর্যয়

https://twitter.com/WDeshersangbad

© All rights reserved © 2011 deshersangbad.com/
Design And Developed By Freelancer Zone