শনিবার, ১০ এপ্রিল ২০২১, ০৯:০৯ অপরাহ্ন

শিরোনাম :
পাঁচ উপায়ে দূর করুন বিরক্তিকর ব্রণ ডালিমের ১০ আশ্চর্য গুণ যুক্তরাষ্ট্র প্রতিবছরে একশত বিলিয়ন মার্কিন ডলারের জলবায়ু তহবিল করবে বাসাভাড়া নিতে বাড়িওয়ালাকে নকল স্বামী দেখালেন প্রভা! প্রথম দিনেই ব্যাপক সাড়া ফেলেছে ‘মহব্বত’ সংকটে করোনা রোগীরা হাসপাতালগুলোতে ঘুরেও মিলছে না শয্যা অরাজকতা সৃষ্টির চেষ্টা করলে কঠোর ব্যবস্থা ব্রিটেনের রানি ও প্রধানমন্ত্রীকে শেখ হাসিনার চিঠি টিকা প্রতিরোধী ভয়ঙ্কর ভাইরাসের উৎপত্তিস্থল হবে বাংলাদেশ! লকডাউনে পোশাক কারখানা বন্ধ কিনা, জানা যাবে কাল বাংলাদেশে করোনা মৃত্যুতে রেকর্ড, কমেছে শনাক্ত করোনায় আক্রান্ত দুদকের ২১ কর্মকর্তা-কর্মচারী লকডাউনের আগের দু‍‍`দিন নিয়ে ধোঁয়াশা, যা বললেন প্রতিমন্ত্রী রাজারহাটে ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের উদ্বোধন প্রজাতন্ত্র দিবসকে রাষ্ট্রীয় স্বীকৃতি দিতে হবে ………আ স ম‌ রব

যৌ’ব’ন ক্ষ’মতা বা’ড়াবে ১ টুকরো আদা, কিন্তু কখন কি’ভাবে খাবেন!!!

পুরুষের যৌবন ক্ষমতা বাড়াবে ১ টুকরো আদা! কিন্তু কখন কিভাবে খাবেন? আদা ছাড়া বাঙালির রান্নাঘর ভাবাই যায় না।সুস্বাদু রান্নার জন্য রান্না ঘরে আদা চাই-ই চাই। কিন্তু আদা শুধু খাবারের স্বাদ ও গন্ধ বাড়ায় না, এক টুকরো আদা পুরুষের যৌবন ক্ষমতা বাড়িয়ে জীবনও বদলে দিতে পারে। কি বিশ্বাস হচ্ছে না তো!

নিয়মিত আদা খেলে পুরুষের প্রজনন ক্ষমতা বাড়ে। সহজেই স্পার্ম কাউন্ট বৃদ্ধি করে আদা।প্রাকৃতিক অ্যান্টিবায়োটিক উপাদানে ভরপুর আদা। তাই রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়। নিয়মিত আদা খাওয়ার অভ্যাস করলে ছোটখাটো অনেক রোগের হাত থেকেই মুক্তি মেলে।

দুর্বল লাগছে? কারণ, যাই হোক এক টুকরো আদা খেয়ে নিন। অনেকটা শক্তি পাবেন। পরে চিকিৎসকের পরামর্শ নিন, জানুন দুর্বলতার কারণ। নিয়মিত আদা খেলে পুরুষের প্রজনন ক্ষমতা বাড়ে। সহজেই স্পার্ম কাউন্ট বৃদ্ধি করে আদা।

প্রাকৃতিক অ্যান্টিবায়োটিক উপাদানে ভরপুর আদা। তাই রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়। নিয়মিত আদা খাওয়ার অভ্যাস করলে ছোটখাটো অনেক রোগের হাত থেকেই মুক্তি মেলে।দুর্বল লাগছে? কারণ, যাই হোক এক টুকরো আদা খেয়ে নিন। অনেকটা শক্তি পাবেন। পরে চিকিৎসকের পরামর্শ নিন, জানুন দুর্বলতার কারণ। আদা খাবারে স্বাদ বাড়ানোর পাশাপাশি আমাদের দেহের সুস্থতার জন্য বিশেষভাবে উপযোগী। এছাড়াও কাঁচা আদায় রয়েছে দারুণ সব উপকারিতা।

খেতে একেবারেই ইচ্ছে হচ্ছে না? অসুস্থ বোধ করছেন খাবার দেখলেই? কোনো সমস্যাই নয়। খাওয়ার আগে ১ চা চামচ তাজা আদা কুচি খেয়ে নিন। মুখের রুচি ফিরে আসবে। প্রতিদিন মাত্র ১ ইঞ্চি পরিমানের আদা কুচি খাওয়া অভ্যাস সাইনাসের সমস্যা প্রতিরোধে সহায়তা করে।

হাতে পায়ের জয়েন্টে ব্যথা হলে সাহায্য নিতে পারেন আদার তেলের। খানিকটা অলিভ অয়েলে আদা ছেঁচে নিয়ে ফুটিয়ে নিন ৫ মিনিট। ঠাণ্ডা হলে ছেঁকে এই তেল দিয়ে ম্যাসাজ করুন হাতে পায়ের জয়েন্টে। আদার অ্যান্টিইনফ্লেমেটরি উপাদান দূর করে দেবে ব্যথা।

বমি বমি ভাব হচ্ছে? কিংবা মাথা ঘুরানো? একটুখানি আদা স্লাইস করে লবণ দিয়ে চিবিয়ে খেয়ে নিন। দেখবেন বমি ভাব একেবারেই কেটে গিয়েছে। হজমে সমস্যার কারণে পেতে ব্যথা হলে আদা কুচি খেয়ে নিন। আদা পেতে গ্যাসের সমস্যা থেকেও মুক্তি দিতে বেশ কার্যকরী।

খাবারের পুষ্টি দেহে সঠিকভাবে শোষণ করার ক্ষমতা বাড়ায় আদা। তাই প্রতিদিন খুব সামান্য পরিমাণে হলেও আদা খাওয়া অভ্যাস করা উচিত সকলের।বুকে সর্দি কফ জমে গিয়েছে? নিঃশ্বাস টানতে সমস্যা হচ্ছে? ২ কাপ পানিতে আদা কুচি দিয়ে ফুটিয়ে নিন। পানি যখন অর্ধেক হয়ে আসবে জ্বাল হয়ে তখন ছেঁকে নামিয়ে ১ টেবিল চামচ মধু মিশিয়ে পান করে ফেলুন। বেশ আরাম পাবেন।

বিয়ের পরে কি বেড়ে যায় মে’য়েদের ভালবাসার খুদা? জে’নে নিন
বিয়ের পর কেমন হয় মে’য়েদের জীবন? তাঁদের ভালবাসার খুদা, বা আরও সুনির্দিষ্টভাবে বললে, যৌ*aন চা’হিদা কি তাঁদের অবিবা’হিত জীবনের থেকে কিছু বাড়ে, বা কমে?সমীক্ষা জানাচ্ছে, বিযের পর বৃ’দ্ধি পায় ম’হিলাদের শা’রীরিক ভালবাসার চা’হিদা। ‘পার্সোনালিটি অ্যান্ড ইন্ডিভিজু’য়াল ডিফারেন্সেস’-এ প্রকাশিত একটি গবে’ষণাপত্রে বলা হচ্ছে, ২৭ থেকে ৪৫ বছর ব’য়সি বিবা’হিত মে’য়েদের তাঁদের যৌ*aন জীবনে শুধু‌ যে অধিকতর সক্রিয় তা-ই নয়, তাঁদের যৌ*aন ফ্যান্টাসিগু’লিও অল্পব’য়সি অবিবা’হিত মে’য়েদের থেকে অনেক বেশি তীব্র। কিন্তু এমনটা হওয়ার কারণ কী?

ওই একই গবে’ষণাপত্রে দাবি করা হচ্ছে, এই প্রশ্নের উত্তর নিহিত রয়েছে মানবসভ্যতার ইতিহাসে। আদিম মানবসমাজে বিভিন্ন রো’গব্যাধি, যু’দ্ধ, অনাহার ও প্রাকৃতিক দু্র্যোগে অজস্র শি’শুর মৃ’ত্যু দেখতে দেখতে বড় হতে হত মে’য়েদের। ফলে অল্পব’য়স থেকেই যত বেশি সম্ভব শি’শুর জ’ন্ম দিয়ে এই শি’শুমৃ’ত্যুর ক্ষ’তিপূরণের একটা বাসনা তৈরি হত মে’য়েদের মনে। এই মনোভাবের রেশ আধুনিক যুগের মে’য়েদের মনেও রয়ে গিয়েছে। কিন্তু ব’য়স বাড়ার স’ঙ্গে স’ঙ্গে ম’হিলাদের স’ন্তানধারণের ক্ষ’মতা হ্রাস পায়। ফলে সেক্ষেত্রে বাড়াতে হয় যৌ*aনক্রিয়ার পরিমা‌ণ।

আমাদের দেশের মে’য়েদের ক্ষেত্রে এই নিয়মের ব্যতিক্রম ঘটে না। বরং মনস্তাত্ত্বিক সুধীর কাকর ও ক্যাথারিনা কাকরের‘দা ইন্ডিয়ানস: পোর্ট্রেট অফ আ পিপল’ গ্রন্থে বলা হচ্ছে, সাধারণভাবে এদেশে দাম্পত্য জীবনে এখনও বহুলাংশে স’ন্তানলাভকেই যৌ*aনতার প্রধান লক্ষ্য বলে মনে করা হয়। ফলে স’ন্তান জ’ন্ম নেওয়ার পরে এদেশে দম্পতিদের স্বাভাবিক যৌ*aন জীবনে একটা ভাটা আসে। যৌ*aনতার অভাব মে’য়েদের মধ্যে যৌ*aন তাড়নার বৃ’দ্ধি ঘটায় বলেই মনে করছেন মনস্তাত্ত্বিকরা। স্বাভাবিকভাবেই, বিয়ের পরে বেড়ে যায় মে’য়েদের ভালবাসারা চা’হিদা।

আপনার স’ঙ্গী কি আপনার স’ঙ্গে অপরিতৃ’প্ত ? কিভাবে বুঝবেন ? একটি শিক্ষণীয় পোস্ট নিজের প্রজ’ন্মকে বাঁচিয়ে রাখতে এবং জীবনকে আরো উপভোগ্য করে তুলতে সাথে নিজের সাংসারিক জীবনকে আরো মধুর করে তুলতে যৌ*aনতার দরকার অবশ্যই দরকার আছে, সেই স’ঙ্গে দরকার আছে স’ঙ্গীকে পুরোপুরি তৃ’প্তি দেওয়া। যেটা করতে অ’ক্ষম হন অনেকেই। আসুন তাহলে একটু দেখে নিই কীভাবে আপনি বুঝতে পারবেন আপনার স’ঙ্গী আপনার ও’পর পরিতৃ’প্ত কি না?

দেখু’ন আমরা সকলেই জানি যে যৌ*aন মি’লনের শেষ পর্যায় হচ্ছে অ’রগাজম বা চ’রম তৃ’প্তি। না’রী এবং পুরু’ষ দুজনের ক্ষেত্রে বি’ষয়টা একটু অন্যরকম। একজন না’রী সম্পূর্ণভাবে মি’লন অনুভব করে চ’রম সীমায় পৌঁছাতে যেটুকু সময় নেন তুলনামূ’লক ভাবে একজন পুরু’ষের সময় অনেক কম লাগে। আর এর ফলেই শুরু হয় সমস্যা। সুতরাং আপনি যখন মি’লনে রয়েছেন তখন আপনাকে শুধু নিজের দিকটা দেখলে চলবেনা আপনাকে আপনার উল্টোদিকের মানুষের পরিতৃ’প্তির কথাও ভাবতে হবে।

আমাদের মত তৃতীয় বিশ্বের বিপুল সংখ্যক না’রীর অ’রগাজমের সাথে পরিচয় নেই। এমনকি তারা জানেন না- অ’রগাজমের ব্যাপারে। কেননা পুরু’ষের চাইতে না’রীর অ’রগাজমটা একটু ভিন্ন ও গভীর। পুরু’ষের অ’রগাজম বা যৌ*aন মি’লনে পরিতৃ’প্তি যত সহজে আসে, না’রীর ক্ষেত্রে তেমনটা হয় না। না’রীর অ’রগাজমে সময় ও যৌ*aন মি’লনের সঠিক পজিশন প্রয়োজন। যা অনেকেই না মেনে স’ঙ্গিনীর স’ঙ্গে যৌ*aন মি’লনে লি’প্ত হন। এরজন্য দরকার সঠিক সে*ক্স-এডুকেশন।

পাশাপাশি পিপাসা বোধ করতে পারেন, ক্লান্তিতে ঘুম আসবে, হুট করেই যৌ*aন মি’লনের আ’গ্রহ হা’রিয়ে যাবে। শ’রীর কাঁপতেও পারে আবেশে। যো’নির ভে’তরে কম্পন অনুভূত হতে পারে। এসব লক্ষণ প্রকাশের আগে পুরু’ষের বী’র্যপাত হলে বুঝতে হবে স’ঙ্গিনীকে পরিতৃ’প্ত করতে পারেননি। যা দাম্পত্য জীবনের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ বলে মনে করছেন গবেষকরা

Please Share This Post in Your Social Media

দেশের সংবাদ নিউজ পোটালের সেকেনটের ভিজিটর

38440354
Users Today : 1400
Users Yesterday : 1410
Views Today : 12017
Who's Online : 37
© All rights reserved © 2011 deshersangbad.com/
Design And Developed By Freelancer Zone