মঙ্গলবার, ১১ মে ২০২১, ১১:০৯ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম :
বাংলাদেশে ফিরতে না পেরে কলকাতায় ক্যান্সার আক্রান্ত শিশুর মৃত্যু রাজধানীতে ফুটপাতে পড়ে ছিলো ভিক্ষুকের লাশ ঢাকার পথে চীনের ৫ লাখ করোনার টিকা দিনে ফেরি চলাচলের অনুমতি দিল বিআইডব্লিউটিসি শোলাকিয়ায় এবারও হচ্ছে না ঈদুল ফিতরের জামাত আহত গার্মেন্টস শ্রমিককে দেখতে হাপাতালে শ্রম প্রতিমন্ত্রী ঢাকা সাভারে ফখরুল আলম সমর কোভিড-১৯ এ ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের  মাঝে প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া ঈদ উপহার  তুলে দিলেন  বাগেরহাটে মোরেলগঞ্জে প্রধানমন্ত্রীর ঈদ উপহার ৫৮ হাজার পরিবার পেলেন মাদকবিরোধী অভিযানে তানোর থানা মডেল কুড়িগ্রামে গোল্ডেন ক্রাউন তরমুজ চাষে সফল তিন তরুণ সোনাগাজীতে জাতীয় পার্টির পক্ষে ২শতাধিক ব্যক্তির মাঝে নগদ টাকা বিতরণ লক্ষ্মীপুরে খাদ্যসামগ্রী নিয়ে হঠাৎ প্রতিবন্ধীর বাড়িতে হাজির ওসি জসিম উদ্দিন ময়মনসিংহের ত্রিশালে সাংবাদিক এনামুল ফাউন্ডেশনের ইফতার ও দোয়া মাহফিল করোনায় পরিবহন শ্রমিকদের সীমাহীন দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে : আ ন ম শামসুল ইসলাম বিয়ে করার জন্য পাত্র খুজছেন তসলিমা নাসরিন

লাইফ সাপোর্টে সংগীত পরিচালক ফরিদ আহমেদ

শারীরিক অবস্থার অবনতি ঘটেছে করোনায় আক্রান্ত সংগীত পরিচালক ফরিদ আহমেদের। অনেক কাঠখড় পুড়িয়ে ১১ এপ্রিল রাত ১২টার দিকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতাল থেকে স্কয়ার হাসপাতালের আইসিইউতে নেয়া হয় তাকে।

সেখানে গিয়েও উন্নতি হয়নি৷ রোববার (১১ এপ্রিল) ভোর ৪টার দিকে ভেন্টিলেশন সাপোর্ট দেওয়া হয় ফরিদ আহমেদকে। যেটাকে লাইফ সাপোর্টও বলা হয়। ৭২ ঘণ্টা পর্যবেক্ষণের পর চিকিৎসকদের মতামত জানা যাবে বলে জানান ফরিদ আহমেদের সহকর্মী গীতিকবি ফরিদা ফারহানা।

তিনি রোববার দুপুরে বলেন, ‘এত দ্রুত এতোটা অবনতি ঘটবে স্যারের, আমরা ধারণাও করতে পারিনি। ভোর ৪টার দিকে ভেন্টিলেশন সাপোর্ট দেওয়া হয়। অবস্থা খুবই গুরুতর বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা।’

ফরিদা ফারহানা আরো জানান, ‘স্যারকে ভেন্টিলেশনে নেওয়ার পর থেকে ভাবী খুবই ভেঙে পড়েছেন। সবার কাছ থেকে এখন আমরা দোয়া চাই স্যারের জন্য। একমাত্র সৃষ্টিকর্তাই পারেন স্যারকে বাঁচাতে।’

এর আগে মার্চের শেষ সপ্তাহে সস্ত্রীক করোনা পজিটিভ ফল পান ফরিদ আহমেদ। অবস্থার খানিক অবনতি হলে ২৫ মার্চ রাতে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে ভর্তি করা হয় এই সংগীত পরিচালককে। এরমধ্যে স্ত্রী শিউলি আক্তারের অবস্থা ভালো হলেও ফরিদ আহমেদের তেমন কোনও উন্নতি হয়নি।

অনেক কালজয়ী গানের সুরকার ফরিদ আহমেদ। লিটন অধিকারী রিন্টুর লেখা ও কুমার বিশ্বজিতের গাওয়া ‘তুমি ছাড়া আমি যেন মরুভূমি’ গানে সুর করে প্রথম প্রশংসিত হন ফরিদ আহমেদ। এরপর থেকে অসংখ্য গান সৃষ্টি করেছেন তিনি। নাটক-সিনেমার আবহসংগীতকার হিসেবেও তার অবদান অনেক।

ফরিদ আহমেদের সুর করা আলোচিত গানের মধ্যে রয়েছে ‘ইত্যাদি’ ম্যাগাজিনের টাইটেল সং ‘কেউ কেউ অবিরাম চুপি’, কুমার বিশ্বজিতের গাওয়া ‘তুমি ছাড়া আমি যেন মরুভূমি’, ‘মনেরই রাগ অনুরাগ’, রুনা লায়লার ‘ফেরারী সাইরেন’, রুনা লায়লা ও সাবিনা ইয়াসমীনের কণ্ঠে ‘দলছুট প্রজাপতি’, চ্যানেল আইয়ের ‘আজ জন্মদিন’, ‘ক্ষুদে গানরাজ’, ‘হৃদয়ে মাটি ও মানুষ’, সেরা কণ্ঠ প্রতিযোগিতার থিম সং, রেজওয়ানা চৌধুরী বন্যার কণ্ঠে ‘তুমি আমার জীবনের গহীনে’ প্রভৃতি।

২০১৭ সালে সংগীত পরিচালক হিসেবে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পেয়েছেন ফরিদ আহমেদ। ‘তুমি রবে নীরবে’ সিনেমায় সংগীত পরিচালনার জন্য এ পুরস্কার অর্জন করেন তিনি।

মিউজিক কম্পোজার্স সোসাইটি এবং রেশ ফাউন্ডেশন নামের আলাদা দুটি সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক হিসেবেও দায়িত্ব পালন করছেন ফরিদ আহমেদ।

Please Share This Post in Your Social Media


বঙ্গবন্ধু কাতরকণ্ঠে বলেন, মারাত্মক বিপর্যয়

বঙ্গবন্ধু কাতরকণ্ঠে বলেন, মারাত্মক বিপর্যয়

https://twitter.com/WDeshersangbad

© All rights reserved © 2011 deshersangbad.com/
Design And Developed By Freelancer Zone