মঙ্গলবার, ১১ মে ২০২১, ১০:২৩ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম :
কুড়িগ্রামে গোল্ডেন ক্রাউন তরমুজ চাষে সফল তিন তরুণ সোনাগাজীতে জাতীয় পার্টির পক্ষে ২শতাধিক ব্যক্তির মাঝে নগদ টাকা বিতরণ লক্ষ্মীপুরে খাদ্যসামগ্রী নিয়ে হঠাৎ প্রতিবন্ধীর বাড়িতে হাজির ওসি জসিম উদ্দিন ময়মনসিংহের ত্রিশালে সাংবাদিক এনামুল ফাউন্ডেশনের ইফতার ও দোয়া মাহফিল করোনায় পরিবহন শ্রমিকদের সীমাহীন দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে : আ ন ম শামসুল ইসলাম বিয়ে করার জন্য পাত্র খুজছেন তসলিমা নাসরিন ছাত্রীর স্ত”নে শিক্ষকের একাধিক বে’ত্রাঘা’ত, হা’সপা’তা’লে শিক্ষার্থী সাপাহারে ভিজিএফ’র তালিকা প্রস্তুতে অনিয়মের অভিযোগ করোনাকালীন শিক্ষা, আমাদের অর্জন ও ভবিষ্যত। ডোমারে শিশুদের মাঝে ঈদের পোষাক উপহার দিল সবার পাঠশালা গাইবান্ধায় বিশ্ব মা দিবস উদযাপন বজ্রপাত থেকে রক্ষা পেতে কৃষকের ছাউনি এক বোটায় ধরেছে ৭ লাউ! শিক্ষার্থীদের জন্ম নিবন্ধন অনলাইনে করার নির্দেশ ডিজিটাল বুথের মনিটরে ক্লিক করলেই মিলবে জমির খতিয়ান

সড়কের বেহাল দশায় চরম জনদুর্ভোগ

পটুয়াখালী : পটুয়াখালী শহরসংলগ্ন হেতালিয়া বাঁধঘাট থেকে তিতকাটা পর্যন্ত সড়কের বেহাল দশা। সদর উপজেলার বড়বিঘাই, ছোটবিঘাই এবং মাদারবুনিয়া ইউনিয়নের  লক্ষাধিক মানুষের পটুয়াখালী শহরের সাথে যোগাযোগের একমাত্র মাধ্যম হচ্ছে এই সড়কটি।

সরেজমিনে দেখা যায়, পুরো সড়কটি খানাখন্দকে ভরা, ভাঙন এমন পর্যায়ে গিয়ে পৌঁছেছে যে সড়কটি চলাচলের জন্য সম্পূর্ণ অনুপোযোগী। কোনোরকমে এসব এলাকার মানুষ খুব কষ্ট করে উক্ত সড়কটি দিয়ে চলাচল করে। রোগী পরিবহনের ক্ষেত্রে ভোগান্তির শেষ থাকে না।

এই সড়ক দিয়ে প্রতিদিন রিক্সা,  মোটরসাইকেল, অটোরিকশা, টমটম, মাহেন্দ্র ট্রলিসহ বিভিন্ন ধরনের যানবাহন চলাচল করে। সড়কের বেহাল দশার কারণে প্রতিদিন দু-চারটি দুর্ঘটনা ঘটে থাকে।

বোতলবুনিয়া নিবাসী আলতাফ হোসেন মৃধা বলেন, বর্ষাকাল আসলে আমাদের কষ্টের কোনো সীমা থাকে না। জনপ্রতিনিধিরা দীর্ঘদিন পর্যন্ত কোনো পদক্ষেপ নেয় না। একই গ্রামের বাসিন্দা আনিসুর রহমান বলেন, ২০০১-২০০৫ সালের মধ্যে সড়কটি প্রথম নির্মাণ হয়েছিল। এই ১৭-১৮ বছরে মাত্র ১ বার দায়সারাভাবে সড়কটি মেরামত করা হয়েছিল। প্রতিনিয়ত ঘটছে দুর্ঘটনা। গাড়ি উল্টে গিয়ে যাত্রী আহত হাওয়ার মতো ঘটনা প্রায়শই ঘটে থাকে। আমাদের আল্লাহ ছাড়া কোনো উপায় নেই।

হরিতকীবাড়িয়া নিবাসী শিক্ষক জামাল হোসেন বলেন, পটুয়াখালী সদর হাসপাতালে রোগী নিতে হয় স্পিডবোট ভাড়া করে। গুনতে হয় ৩০০০-৩৫০০ টাকা ভাড়া। ইতিপূর্বে এক গর্ভবতী মায়ের সড়কপথে হাসপাতালে নেওয়ার পথে অটোরিকশার ভেতরে সন্তান প্রসবের মতো ঘটনা ঘটেছে।

একই গ্রামের বাসিন্দা জাকির গাজী বলেন, রোগী পরিবহনে মারাত্মক সমস্যা হচ্ছে। দৈনিক সড়কে দুর্ঘটনা ঘটতেছে। বর্ষা আসলেতো কথাই নাই। আমাদের কষ্টের কোনো সীমা থাকেনা।

পটুয়াখালী এলজিইডির নির্বাহী প্রকৌশলী জি. এম. শাহাবুদ্দিন বলেন, এই সড়কটি মেরামতের জন্য তিনটি প্যাকেজে দরপত্র আহ্বান করা হয়েছে। তিনটি প্যাকেজের মধ্যে একটি প্যাকেজের কার্যাদেশ দেওয়া হয়েছে বাকি দুইটি প্যাকেজ দরপত্র মূল্যায়নের জন্য ঢাকায় পাঠানো হয়েছে। চূড়ান্ত অনুমোদন পেলে বাকি দুইটির কার্যাদেশ দেওয়া হবে। আশাকরি এ বছর জুন মাসের দিকে কাজ শুরু করা যাবে। সাধারণ ভুক্তভোগী মানুষের একটাই দাবি সংশ্লিষ্ট দপ্তর যেন অতি দ্রুত এ সড়কটি মেরামত করেন।

Please Share This Post in Your Social Media


বঙ্গবন্ধু কাতরকণ্ঠে বলেন, মারাত্মক বিপর্যয়

বঙ্গবন্ধু কাতরকণ্ঠে বলেন, মারাত্মক বিপর্যয়

https://twitter.com/WDeshersangbad

© All rights reserved © 2011 deshersangbad.com/
Design And Developed By Freelancer Zone