শনিবার, ১৭ এপ্রিল ২০২১, ০২:২১ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম :
গৃহহীনদের ঘর দেয়ার কথা বলে অর্থ নেয়ার অভিযোগে সাঁথিয়ায় আ’লীগ নেতাকে শোক’জ করোনায় ১৫ দিনে ১২ ব্যাংকারের মৃত্যু পৃথিবীতে কোনো জালিম চিরস্থায়ী হয়নি: বাবুনগরী যারা আ.লীগ সমর্থন করে তারা প্রকৃত মুসলমান নয়: নূর চট্টগ্রামে বেপরোয়া হুইপপুত্র যুবলীগ নেতাকে কুপিয়ে হত্যা অক্সিজেনের তীব্র সংকট দেখা দিয়েছে ভারতে ৪ ঘণ্টা পর পাকিস্তানে খুলে দেয়া হলো সোশ্যাল মিডিয়া করোনায় ২৪ ঘণ্টায় ১০১ জনের মৃত্যু ভাড়াটিয়াকে তাড়িয়ে দিলেন বাড়িওয়ালা, পুলিশের হস্তক্ষেপে রক্ষা জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে জনপ্রিয় নায়িকা মিষ্টি মেয়ে কবরী স্বামী পরিত্যক্তা নারীকে গণধর্ষণ, আটক ৩ দুই দিনের রিমান্ডে ‘শিশুবক্তা’ রফিকুল লকডাউনেও মসজিদে মসজিদে মুসল্লিদের ঢল বেনাপোলে ৮৮ কেজি গাঁজাসহ মাদক কারবারী আটক

৩ বছরের শিশুকে সারাদিন ধরে ধর্ষণ, এরপর হত্যা!

 

কোলে ঘুমিয়েছিল শিশুটি। মাও ঘুমাচ্ছিলেন। ঘুম ভাঙার পর তিন বছরের মেয়েটিকে আরও কোলে নিতে পারেননি। ঘুমন্ত অবস্থায় অপহরণের পর দুই দুবৃত্ত মেয়েটিকে ধর্ষণ করে। এরপর গলাকেটে হত্যা করে। শিশুটির শরীর পাওয়া গেলেও মাথা পাওয়া যায়নি। ভারতের ঝাড়খণ্ডের জামশেদপুরে এ ঘটনা ঘটেছে।

২৭ জুলাই গ্রেফতার হওয়া এক অভিযুক্ত এখনও জানাতে পারেনি শিশুটির শিরচ্ছেদ করার পর মাথাটি সে কোথায় রেখেছে। পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, দুই অভিযুক্ত রিঙ্কু সাহু ও কৈলাস পুলিশকে ঘটনাস্থলে নিয়ে যায়, যেখানে শিশুটির ছিন্ন দেহ প্লাস্টিকের ব্যাগে ভরে ফেলে এসেছিল তারা। পুলিশ গোয়েন্দা কুকুরের সাহায্যে ছিন্ন মাথাটির খোঁজে তল্লাশি চালালেও প্রবল বৃষ্টির কারণে এখনও তা খুঁজে পাওয়া যায়নি।

অন্যতম অভিযুক্ত রিঙ্কুর লম্বা ক্রাইম রেকর্ড রয়েছে। ২০১৫ সালে এক শিশুকে অপহরণ ও তাকে হত্যার চেষ্টার অপরাধে সে কারাবাস করছিল। সম্প্রতি সে জামিন পেয়েছিল। সে এবং তার বন্ধু কৈলাস দু’জনেরই বয়স ৩০-এর কোঠায়। তারা পুলিশকে জানিয়েছে, তারা সারাদিন ধরে ওই শিশুটিকে ধর্ষণ করার পর তাকে হত্যা করে, কেননা শিশুটি কান্না থামাচ্ছিল না।

মঙ্গলবার স্টেশন থেকে ৪ কিমি দূরে আবর্জনার স্তূপের ধারে ঝোপের আড়াল থেকে দেহটি আবিষ্কৃত হয়।

গত বৃহস্পতিবার শিশুটি তার মায়ের কোলে ঘুমোচ্ছিল টাটানগর রেলওয়ে স্টেশনে। সেখান থেকেই সে নিখোঁজ হয়ে যায়। সিসিটিভি ফুটেজ থেকে দেখা যায় টিশার্ট আর শর্টস পরা একটি লোক (যাকে রিঙ্কু বলেই মনে করা হচ্ছে) শিশুটিকে কোলে নিয়ে সেখান থেকে বেরিয়ে যাচ্ছে।

কয়েক ঘণ্টা পরে শিশুকে খুঁজে না পেয়ে তার মা পুলিশের কাছে যান। তিনি জানান, এ ব্যাপারে নিজের পুরুষ সঙ্গী মনু মণ্ডলকে তিনি সন্দেহ করেন। প্রসঙ্গত, এই মনুর সঙ্গেই নিজের স্বামীকে ছেড়ে পুরুলিয়ে থেকে এখানে আসেন তিনি। মনুকে গ্রেফতার করে পুলিশ। তাকে এখনও জেরা করা হচ্ছে।

সিসিটিভি ফুটেজ দেখে পুলিশের পক্ষে সহজ হয়েছে মূল অভিযুক্তকে চিহ্নিত করা। অন্যতম অভিযুক্ত রিঙ্কুর মা একজন কনস্টেবল। প্রতিবেশীদের দাবি, এর আগের সমস্ত অপরাধের ক্ষেত্রে তিনি ছেলেকে প্রশ্রয় দিয়েছেন। তিন সন্তানের বাবা রিঙ্কু এর আগেও শিশু অপহরণ ও নিগ্রহের ঘটনা ঘটিয়েছেন। আর কৈলাসের বাবা একজন সৈনিক।

Please Share This Post in Your Social Media

দেশের সংবাদ নিউজ পোটালের সেকেনটের ভিজিটর

38448570
Users Today : 194
Users Yesterday : 1193
Views Today : 675
Who's Online : 20
© All rights reserved © 2011 deshersangbad.com/
Design And Developed By Freelancer Zone