বুধবার, ১৯ মে ২০২১, ০২:৫৩ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম :
সাংবাদিক রোজিনার মুক্তির দাবিতে লক্ষ্মীপুরে মানববন্ধন চাটখিলে টিসিবির ১৯৬ লিটার তেল জব্দ, ২০হাজার টাকা জরিমানা করোনায় আরো ৩০ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ১২৭২ ‘সাংবাদিক নির্যাতনে বিশ্ব মিডিয়ায় বাংলাদেশের ইমেজ প্রশ্নবিদ্ধ’ কবিতা…অভিমান -বিচিত্র কুমার রোজিনার বিষয়ে দুই মন্ত্রীর সঙ্গে প্রেসক্লাব নেতাদের বৈঠক ‘সরকারকে বাঁশ দেওয়ার জন্য গুটিকয়েক মন্ত্রী–সচিবই যথেষ্ট’ সম্পাদক পরিষদের বিবৃতি সংবাদপত্রের কণ্ঠরোধের মানসিকতা থেকে রোজিনা ইসলামের বিরুদ্ধে মামলা বৃহস্পতিবার থেকে ৬৫ দিন সমুদ্রে মাছ ধরায় নিষেধাজ্ঞা সাংবাদিককে হেনস্তা: স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের তদন্ত কমিটি সাংবাদিক রোজিনাকে নি:শর্ত মুক্তির দাবি জানিয়েছে বিএমএসএফ নওগাঁর মহাদেবপুরে সাংবাদিক রোজিনা ইসলামের উপর হামলার প্রতিবাদে ডিজিটাল প্রেসক্লাবের নিন্দা ধুপাজান চলতি নদীতে সদর থানা পুলিশের অভিযানে ৭টি নৌকা আটক প্রায় ৩লাখ টাকা জরিমানা নোয়াখালীতে সাংবাদিক রোজিনা ইসলামকে নির্যাতন ও আটকের প্রতিবাদে মানববন্ধন বরিশালে গরমে তৃপ্তি মেটাতে পানি তালের চাহিদা বেড়েছে

হায়রে প্রেম হিন্দু স¤প্রদায়ের মেধাবী স্কুলছাত্রী হৈমন্তীকে ওরা বাঁচতে দিল না

\উজ্জ্বল রায়■: সরকারি মডেল মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ছাত্রী হৈমন্তি শুক্লা যৌন হয়রানির লজ্জা সহ্য করতে না পেরে নীলগঞ্জ ইউনিয়নের হাজীপুর গ্রামের ভাড়া বাসার নিজ কক্ষে ফ্যানের সঙ্গে ওড়না পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করে। ঘটনার বিস্তারিত বিবরণে জানা যায়, হৈমন্তীর বাবা পল্লী বিদ্যুৎ কর্মকর্তা সুনীল চন্দ্র হাওলাদার গত জানুয়ারিতে হাজীপুর পোস্টিং হওয়ার পর কলাপাড়া পৌর শহরের রহমতপুর এলাকায় মোসলেম আলীর বাসায় চার মেয়ে, এক ছেলে ও স্ত্রীকে নিয়ে ভাড়া বাসায় উঠেন। উনার সেজ মেয়ে হৈমন্তি শুক্লা খেপুপাড়া সরকারি মডেল মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণীর মানবিক বিভাগের ছাত্রী ছিল। পড়াশোনায় অত্যন্ত মেধাবী শুক্লা স্কুল, বাসা ও প্রাইভেট পড়েই দিনের অধিকাংশ সময় পার করত। এলাকার বখাটে সুমন প্রায়ই তার সহযোগীদের নিয়ে স্কুলে আসা-যাওয়ার পথে শুক্লাকে প্রেম নিবেদন করত ও কুপ্রস্তাব দিত। বিষয়টি শুক্লা তার মা সবিতা রানীকে জানায়। মেয়ের সম্ভ্রম রক্ষায় বিষয়টি তিনি সুমনের চাচা জহিরকে জানান। কিন্তু জহির বিষয়টি গুরুত্ব না দিয়ে তাকে বলেন, আজকাল ছেলেমেয়েরা প্রেম-ট্রেম করে থাকে। এতে কিছু হয় না। সুমনের অভিভাবকরা বিষয়টি গুরুত্ব না দেয়ায় সুমন আরও বেপরোয়া হয়ে উঠে এবং তার বন্ধুদের নিয়ে শুক্লাকে প্রতিনিয়ত হয়রানি করতে থাকে। সুমন ও তার বখাটে বন্ধুদের ক্রমাগত হুমকি এবং বখাটেপনায় অতিষ্ঠ হয়ে গত সেপ্টেম্বরে হৈমন্তীর বাবা রহমতপুরের ভাড়া বাসা ছাড়তে বাধ্য হন। সন্তানদের ভবিষ্যৎ চিন্তা করে কর্মস্থল হাজীপুরে সুমন আলমের বাসায় ভাড়ায় ওঠেন। হাজীপুর থেকে প্রতিদিন প্রায় ১২ কিলোমিটার পথ পাড়ি দিয়ে শুক্লা স্কুলে আসতো। স্কুলে আসা-যাওয়ার পথে আবার শুরু হয় সুমনের বখাটেপনা। প্রতিনিয়ত রাস্তায় অটোরিকশা থামিয়ে হৈমন্তীকে উত্ত্যক্ত করত এবং বিয়ের জন্য চাপ দিত। গত ২৬ অক্টোবর সকালে প্রতিদিনের মতো শুক্লা অটোরিকশায় করে স্কুলে যাওয়ার পথে সুমন মোটরসাইকেলে করে তার সহযোগীদের নিয়ে রাস্তায় অটোরিকশা থামিয়ে প্রেমের প্রস্তাবসহ বিয়ের জন্য চাপ দেয়। তাকে বিয়ে না করলে বাবাকে খুন করাসহ হৈমন্তীকে এসিডে ঝলসে দেয়ার হুমকি পর্যন্ত দেওয়া হয়। এক পর্যায়ে মেয়েটির ইচ্ছার বিরুদ্ধে তার শরীরের স্পর্শকাতর স্থানে হাত দেয় এবং টানাহিঁচড়া শুরু করে সুমন। শুক্লা তাকে ধাক্কা দিয়ে অটো থেকে নেমে বাসায় চলে আসে। বখাটেদের অব্যাহত হুমকি, মানসিক যন্ত্রণা ও শারীরিক লাঞ্ছনা সহ্য করতে না পেরে অবশেষে ২৭ অক্টোবর গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করে হৈমন্তি শুক্লা হাওলাদার। গত ২৯ অক্টোবর শুক্লার বাবা ও পটুয়াখালীর কলাপাড়ার হাজীপুর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির অভিযোগ কেন্দ্রের ইনচার্জ সুনীল চন্দ্র হাওলাদার পাঁচ বখাটের বিরুদ্ধে কলাপাড়া থানায় আত্মহত্যায় প্ররোচনার অভিযোগে মামলা করেন। মামলায় কলাপাড়া পৌর শহরের রহমতপুর এলাকার সেলিম মেকারের ছেলে সুমন (২০), ইউনুচের ছেলে শান্ত (২০), তার চাচা জহির (৪০), মিজানুর রহমানের ছেলে শিশির (২২) ও নাইয়াপট্টির জিসানকে (২০) আসামি করা হয়। এরমধ্যে আসামী সুমন এবং তার চাচা জহিরকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। মর্মান্তিক এই ঘটনার নিন্দা প্রতিবাদ ক্ষোভ জানানোর সকল ভাষা হারিয়ে ফেলেছি। অবিলম্বে সকল আসামীকে আইনের আওতায় এনে দ্রুত বিচারের মাধ্যমে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানাচ্ছি। বখাটেদের কারনে ফুলের মতো একটা মেয়ের এধরণের করুণ মৃত্যু কোনভাবেই মেনে নেওয়া যায়না নিলয় চক্রবর্তী জানান।

Please Share This Post in Your Social Media

https://twitter.com/WDeshersangbad


বঙ্গবন্ধু কাতরকণ্ঠে বলেন, মারাত্মক বিপর্যয়

বঙ্গবন্ধু কাতরকণ্ঠে বলেন, মারাত্মক বিপর্যয়

© All rights reserved © 2011 deshersangbad.com/
Design And Developed By Freelancer Zone